শিরোনাম
◈ গাজায় যুদ্ধবিরতি হলেও হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে হামলা বন্ধ হবে না:ইসরায়েল ◈ চার মাসের মধ্যেই প্রাথমিকে ১০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ ◈ পিলখানা হত্যাকাণ্ডের দিবসটির গুরুত্ব বাড়াতে সরকার কার্যকর উদ্যোগ নেবেন, আশা জি এম কাদেরের ◈ সরকার সংবাদপত্রের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করে না: আইনমন্ত্রী ◈ ফিলিস্তিনের বিপক্ষে অপতথ্য ছড়ানো প্রতিরোধে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম তৈরি করতে হবে: তথ্য প্রতিমন্ত্রী ◈ বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির তদন্ত প্রতিবেদন পেছাল ◈ গাজায় যুদ্ধ নয়, গণহত্যা চলছে ইসরায়েল: লুলা দা সিলভা ◈ গ্রামীণ টেলিকমসহ তার প্রতিষ্ঠানগুলোর লভ্যাংশ কাউকে দেয়া যায় না: ড. ইউনূস   ◈ মুখ খুলে মানুষ গণতন্ত্রের কথা বলতে পারছে না: ড. ইউনূস  ◈ স্বাস্থ্যসেবা বিকেন্দ্রীকরণ শুরু হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত : ০৭ অক্টোবর, ২০২২, ০৮:০০ রাত
আপডেট : ০৭ অক্টোবর, ২০২২, ১১:০৭ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

আর্জেন্টিনায় ফুটবল ম্যাচ ঘিরে সংঘর্ষ, আহত ১৫০

সংঘর্ষ মাঠ

আলামিন শিবলী: লিওনেল মেসির দেশ আর্জেন্টিনায় ফুটবল ম্যাচ ঘিরে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। লা প্লাটা স্টেডিয়ামে বোকা জুনিয়র্স ও জিমনেসিয়ার মধ্যকার ম্যাচে এ ঘটনা ঘটে। এতে একজন নিহত ও প্রায় ১৫০ আহত হয়েছেন। বিবিসি

বুয়েনস আইরেস থেকে ৫০ কিমি দূরের স্টেডিয়াম লা প্লাটা। সেখানে মুখোমুখি হয়েছে বোকা ‍ও জিমনেসিয়া। শিরোপা নিষ্পত্তির জন্য এ ম্যাচটি ছিল অনেক গুরুত্বপূর্ণ, যা দেখতে সক্ষমতার চেয়েও কয়েক গুণ বেশি সমর্থক মাঠের বাইরে ভিড় জমিয়েছিলেন। কিন্তু পুলিশ অতিরিক্ত লোকদের ঢুকতে দেয়নি।

পুলিশ সমর্থকদের বাধা দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে সংঘর্ষ বেধে যায়। বাধ্য হয়ে পুলিশকে রবার বুলেট এবং কাঁদানে গ্যাস ছুড়তে হয়। স্টেডিয়ামের ভেতরেও তখন ভয়ংকর অবস্থা। উন্মত্ত সমর্থকদের থামাতে মাঠের ভেতরেও কাঁদানে গ্যাস ছুড়তে থাকে পুলিশ। ততক্ষণে ম্যাচ শুরু হয়ে যায়।

কিন্তু মাঠ গ্যাসে ভরে যাওয়ায় ফুটবলাররা শ্বাস নিতে পারছিলেন না। রেফারি বাধ্য হন ম্যাচ বন্ধ করে দিতে। ততক্ষণে কাঁদানে গ্যাস থেকে বাঁচতে পিচের মধ্যে ঢোকার চেষ্টা করছিলেন সমর্থকরা। বুয়েনোস আইরেসের নিরাপত্তামন্ত্রী সের্জিয়ো বার্নি বলেছেন, এক সমর্থক মারা গিয়েছেন হৃদ্‌রোগে। মাঠের প্রত্যেকে কোনো না কোনভাবে প্রভাবিত হয়েছে। একসময় নিশ্বাস-প্রশ্বাস নেয়া যাচ্ছিল না। পরিস্থিতি একসময় নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায় এবং নিরাপত্তার কোনো নিশ্চয়তা ছিল না বলে ম্যাচ বন্ধ করে দেয়া হয়।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা গেছে, কাঁদানে গ্যাসের হাত থেকে বাঁচতে অনেক সমর্থক মাঠে গিয়ে আশ্রয় নিচ্ছেন। তার মধ্যে ছিল খুদে সমর্থকরাও। ফুটবলাররা সাজঘরে ফিরে যাওয়ার আগেই মাঠের মধ্যে দর্শকরা ঢুকে পড়েন। 

জিমনেসিয়ার ফুটবলার লিয়োনার্দো মোরালেস বলেছেন, আমার দু-বছরের ছেলে শ্বাস নিতে পারছিল না। যারা দর্শকাসনে ছিল তাদের জন্য চিন্তায় পড়ে গিয়েছিলাম। একটা ফুটবল ম্যাচ খেলতে এসে দেখছি আত্মীয়রা মৃত্যুর মুখে, এটা দেখতে কার ভালো লাগে?

এএস/এএস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়