শিরোনাম
◈ ইসরায়েলকে লক্ষ্য করে কয়েক ডজন ড্রোন ছুড়েছে ইরান ◈ বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানালেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ◈ চার বছর পর বিধিনিষেধহীন মুক্ত পরিবেশে পহেলা বৈশাখ ◈ পহেলা বৈশাখে ইলিশের দাম চড়া ◈ নববর্ষ ১৪৩১ বঙ্গাব্দকে বরণে বর্ণাঢ্য র‌্যালি করবে আওয়ামী লীগ ◈ নতুন বছর মুক্তিযুদ্ধবিরোধী অপশক্তির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রেরণা জোগাবে: প্রধানমন্ত্রী ◈ নতুন বছর মানে ব্যর্থতা পেছনে ফেলে সমৃদ্ধ আগামী নির্মাণ করা: মির্জা ফখরুল ◈ ইসরায়েলের তেল আবিব থেকে সরাসরি ঢাকায় ফ্লাইট অবতরণ ◈ বিএনপি গুম-নির্যাতনের কাল্পনিক তথ্য দিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে: ওবায়দুল কাদের ◈ সরকারি খরচে ৩০৪৮টি মামলায় আইনি সহায়তা প্রদান

প্রকাশিত : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০৩:১৭ রাত
আপডেট : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০৩:১৭ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

লেখা হয়ে উঠুক সব ধরনের ঘৃণা ও বিভেদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের হাতিয়ার

মো. সামসুল ইসলাম

মো. সামসুল ইসলাম: বাংলা ভাষায় এখন অনেকেই লিখছেন। ফেসবুকে এটা ভালোই টের পাচ্ছি। কিন্তু এদেশের বাংলাভাষী মানুষের মনস্তত্ত্ব বুঝতে পারে এখন এরকম লেখক খুবই কম। বাঙালি আবেগপ্রবণ জাতি। সঠিক নেতৃত্বে গণতান্ত্রিক চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে তারা মুক্তিযুদ্ধ করেছে। অনেক লেখক, কবি, সাহিত্যিকের রচনায় বিভিন্ন সময় তারা হয়েছে একত্রিত। আমি সাম্প্রতিক লেখকদের অনেক লেখা পড়ি, ভিডিও দেখি, সামাজিক মাধ্যমের বিতর্কগুলো অনুসরণ করি। খুব কম লেখক বা বক্তার মধ্যেই সেই উদারতা দেখতে পাই, যা এদেশের বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর হৃদয়কে স্পর্শ করবে। অথবা তারা আবেগাপ্লুত হয়ে এক বৈষম্যহীন সমাজ প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখবে। 

স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, মাদ্রাসা, মিডিয়া সবই এখন প্রাণশূন্য, গণবিচ্ছিন্ন। প্রথমে কম্যুনিজম, তারপর ওয়ার অন টেরর, এর সাথে সালাফিজম এসব বহিরাগত মতবাদ আমাদের বিভক্ত করেছে। এর সাথে এখন যুক্ত হয়েছে ভূ-রাজনৈতিক খেলা। পেণ্ডুলামের মতো দুলছে আমাদের উঠতি লেখকদের মনন। এর ফলে দেশ হচ্ছে আরও দ্বিধাবিভক্ত। ফেসবুক হয়ে গিয়েছে বিষোদগারের আখড়া। শুধু বাংলা ভাষায় লেখাতেই আমি সন্তষ্ট নই। আমি চাই লেখা হয়ে উঠুক সব ধরনের ঘৃণা ও বিভেদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের হাতিয়ার।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়