শিরোনাম
◈ চার বছর পর বিধিনিষেধহীন মুক্ত পরিবেশে পহেলা বৈশাখ ◈ পহেলা বৈশাখে ইলিশের দাম চড়া ◈ নববর্ষ ১৪৩১ বঙ্গাব্দকে বরণে বর্ণাঢ্য র‌্যালি করবে আওয়ামী লীগ ◈ নতুন বছর মুক্তিযুদ্ধবিরোধী অপশক্তির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রেরণা জোগাবে: প্রধানমন্ত্রী ◈ নতুন বছর মানে ব্যর্থতা পেছনে ফেলে সমৃদ্ধ আগামী নির্মাণ করা: মির্জা ফখরুল ◈ ইসরায়েলের তেল আবিব থেকে সরাসরি ঢাকায় ফ্লাইট অবতরণ ◈ বিএনপি গুম-নির্যাতনের কাল্পনিক তথ্য দিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে: ওবায়দুল কাদের ◈ সরকারি খরচে ৩০৪৮টি মামলায় আইনি সহায়তা প্রদান ◈ রেল ভ্রমণে মানুষের আস্থা তৈরি হয়েছে: রেল মন্ত্রী  ◈ অস্ট্রেলিয়ায় শপিংমলে ছুরি হামলায় নিহত ৫, আততায়ী মারা গেছে পুলিশের গুলিতে

প্রকাশিত : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০২:৪৯ রাত
আপডেট : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০২:৪৯ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

যে কারণে বাংলা ভাষা আরও অবহেলিত হবে 

ড. কামরুল হাসান মামুন

ড. কামরুল হাসান মামুন: ধরুন দেশে কোনো ইংরেজি মাধ্যমের বা ভার্সনের কোনো স্কুল নেই। তাহলে অর্থবিত্ত বা শিক্ষায় কিংবা ক্ষমতায় দেশের প্রভাবশালীদের ছেলেমেয়েরা প্রচলিত বাংলা মাধ্যমে পড়তে বাধ্য হতো। তাহলে কি বাংলা মাধ্যমের কারিকুলাম নিয়ে আজকে যে খেলাটা সরকার বা মন্ত্রণালয় খেলে যাচ্ছে, সেই খেলাটা কি খেলতে পারতো? মোটেও না। যারা এখন ইংরেজি মাধ্যমে পড়ে বিদেশে যাচ্ছে তারা বাংলা মাধ্যমে পড়ে একটি বড় অংশই দেশের পাবলিক কিংবা প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তো। এই ছেলেমেয়েদের একটা অংশ দেশের কবি, সাহিত্যিক, রাজনীতিবিদ, বিজ্ঞানী, অর্থনীতিবিদ, খেলোয়াড়, শিক্ষক বা ব্যাংকার হতো। দেশের উচ্চবিত্তের এই সন্তানরা দেশে থাকতো। তখন সরকার শিক্ষায় বরাদ্দ বাড়াতে বাধ্য হতো। বিশ্ববিদ্যালয়ের লেখাপড়ার মান ভালো হতো। 

নতুন শিক্ষাক্রমের বাংলা মাধ্যমকে আরও অ-জনপ্রিয় করে ইংরেজি মাধ্যমকে আরও জনপ্রিয় করার ফলে উচ্চবিত্তের ছেলেমেয়েদের আরও বেশি হারে বিদেশমুখী করা হবে। দেশ আরও বেশি করে তাদের সার্ভিস পাওয়া থেকে বঞ্চিত হবে। বাংলা ভাষা আরও অবহেলিত হবে। এভাবেই দেশের পাবলিক কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলো বর্তমান প্রাইমারি স্কুলের মতো অবহেলিত হয়ে যাবে। এর খারাপ আছর পড়বে আমাদের প্রশাসনে, রাজনীতিতে, সাহিত্যে, বিজ্ঞান ও গবেষণায় যার লক্ষণ এখনই দেখা যাচ্ছে। লেখক: অধ্যাপক, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়