শিরোনাম

প্রকাশিত : ১০ আগস্ট, ২০২২, ০৪:৩৪ সকাল
আপডেট : ১০ আগস্ট, ২০২২, ০৯:৩৪ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

১০০ খুন করেও যিনি ক্ষমা পেয়েছিলেন

প্রতীকী ছবি

মুহাম্মাদ জিয়াউল হক: হজরত আবু সাঈদ খুদরী (رضی اللہ تعالی عنه) কর্তৃক বর্ণিত, হজরত নবী করিম (ﷺ) বলেছেন, “বনী ইসরাঈলের মধ্যে এমন একজন লোক ছিল, যে নিরানব্বইটি হত্যা করেছিল। অতঃপর, নাজাতের কোন উপায় আছে কিনা তা জানার জন্য বের হয়ে পড়ল। প্রথমে একজন গীর্জাবাসী পাদ্রীর নিকট জিজ্ঞেস করল আমার তাওবা কবুল হবে কি? পাদ্রী বলল, না। তখন তাকেও হত্যা করল।

এর পরে সে এ বিষয়ে জিজ্ঞেস করতেই থাকলো। কোন এক ব্যক্তি তাকে বলল অমুক লোকালয়ে একজন আলেম আছে তার নিকট গিয়ে জেনে নাও। সুতরাং, লোকটি রওয়ানা দিল। কিন্তু পথিমধ্যে তার মৃত্যু হয়ে গেল। তবে মৃত্যুকালে তার মুখটি সেই লোকালয়ের দিকে ঝুঁকিয়ে রাখল।

এখন তাকে নিয়ে রহমতের ফেরেশতা ও আযাবের ফেরেশতা ঝগড়া ও বিতর্ক আরম্ভ করল। এমন সময় মহান পরওয়ারদিগার যে লোকালয়ের দিকে লোকটি যাচ্ছিল তাওবা করার জন্য, তাকে হুকুম করল, হে গ্রাম! লোকটির নিকটবর্তী হয়ে যাও। আর যেখানে সে হত্যার কাজ করত, সে গ্রামকে হুকুম করল, হে গ্রাম! তার থেকে দূরে সরে যাও। তারপর, ফেরেশতাদ্বয়কে বলল, তোমরা উভয় লোকালয়ের দূরত্ব পরিমাপ করে দেখ লোকটি কোন লোকালয়ের বেশি নিকটবর্তী। তারা পরিমাপ করে দেখল তাওবা করতে যাওয়ার লোকালয়টি হত্যাকৃত লোকালয়ের তুলনায় এক বিঘত পরিমাণ নিকটবর্তী। সুতরাং, মহান আল্লাহ তা’আলা তখন তাকে ক্ষমা করে দিল। ” সুবহানআল্লাহ আল্লাহু আকবর
[সূত্র: সহীহ বুখারী শরীফ, হাদিস নং- ৩৪৭০, মুসলিম হা/২৭৬৬, মিশকাত হাদিস/২৩২৭ ‘দো‘আ সমূহ’ অধ্যায়, ‘ইস্তিগফার ও তওবা’ অনুচ্ছেদ]

শিক্ষা:
১. পাপী যদি পাহাড় পরিমাণও পাপ করে তবুও সে আল্লাহর রহমত থেকে নিরাশ না হয়ে খালেছ অন্তরে তওবা করলে আল্লাহ তাকে ক্ষমা করতে পারেন।

মহান আল্লাহ পাক বলেন, ‘বল, হে আমার বান্দাগণ! তোমরা যারা নিজেদের প্রতি অবিচার করেছ আল্লাহতায়ালার অনুগ্রহ হতে নিরাশ হয়ো না; আল্লাহ সমুদয় পাপ ক্ষমা করে দিবেন। তিনি তো ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু’ [সূরা যুমার, আয়াত: ৫৩]

তিনি আরো বলেন, ‘তিনিই তাঁর বান্দাদের তওবা কবুল করেন ও পাপ মোচন করেন এবং তোমরা যা কর তিনি তা জানেন’ [সূরা শূরা, আয়াত: ২৫]

২.কোন বিষয়ে যথাযথভাবে না জেনে সিদ্ধান্ত দেওয়া যাবে না।

৩.মূর্খ ব্যক্তি কোন সমস্যায় পড়লে কুরআন-সুন্নাহ্তে অভিজ্ঞ কোন আলেমের কাছে জিজ্ঞেস করে তার সমস্যার সমাধান করে নিবে।

মহান আল্লাহ বলেন, ‘যদি তোমরা না জান তাহলে সুস্পষ্ট দলীল-প্রমাণসহ জ্ঞানীদের কাছে জিজ্ঞেস কর।
মহান আল্লাহ পাক রব্বুল আলামিন আমাদের সবাইকে খাঁটি তাওবা করে নেক কাজ করে বাকী জীবনটা অতিবাহিত করার তৌফিক দান করেন । -আমিন।


লেখক: আল মারকাজুল ইসলামী(এ এম আই )

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়