শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৫ জানুয়ারী, ২০২৩, ০১:০৪ দুপুর
আপডেট : ২৫ জানুয়ারী, ২০২৩, ০১:০৪ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বালাকোট ঘটনার পর পাকিস্তান-ভারত পরমাণু যুদ্ধের প্রায় মুখোমুখি হয়েছিল: পম্পেও

মাইক পম্পেও

ইমরুল শাহেদ: যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও মঙ্গলবার প্রকাশিত একটি বইতে লিখেছেন, ২০১৯ সালে বালাকোট ঘটনার পর পাকিস্তান ও ভারত পরমাণু যুদ্ধের কাছাকাছি চলে এসেছিল, যা যুক্তরাষ্ট্রের হস্তক্ষেপে আর বাড়েনি। জিওটিভি

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উর্ধ্বতন কূটনীতিক এবং সিআইয়ের সাবেক প্রধান ও হয়তো আগামী দিনের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী মাইক পম্পেও তার সময় নিয়ে লেখা স্মৃতিকথা ‘নেভার গিভ এন ইঞ্চ’ বইতে লিখেছেন, ‘বিশ্ব হয়তো আজো জানেন না যে ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে পাকিস্তান ও ভারত পরমাণু যুদ্ধের কতোটা কাছাকাছি ছিল।’

২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারি ভারত অধিকৃত কাশ্মীরের বালাকোটে এক আত্মঘাতী বোমা হামলায় ভারতের ৪১ জন আধাসামরিক সদস্য নিহত হয়েছিল। তাতে ক্ষুব্ধ হয়ে ভারত বালাকোট সীমান্তে জঙ্গি আস্তানা ধ্বংস করে দেওয়ার অজুহাতে পাকিস্তানের ভূখন্ডে বিমান হামলা চালায়। তাতেই দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা বেড়ে যায়। জবাবে পাকিস্তানের ভেতরে প্রবেশ করা ভারতের একটি যুদ্ধবিমান ধ্বংস করা হয় এবং আটক করা হয় পাইলটকে।

এসময় পম্পেও ছিলেন ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়ে। সেখানে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জন উন ও ট্রাম্পের মধ্যে বৈঠক ছিল। তিনি ঘুমিয়ে ছিলেন। একজন ভারতীয় কর্মকর্তার ফোন কলে তার ঘুম ভাঙ্গে। পম্পেও লিখেছেন, ‘আমার মনে হচ্ছিল পাকিস্তান ভারতে পরমাণু আঘাত হানার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিল। ভারত আমাকে জানালো তারাও সেভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছে।’

পম্পেও তাকে বলেন, ‘আপনারা এসব কিছুই করবেন না। আমাকে কয়েক মিনিট সময় দিন। আমি বিষয়টা দেখছি।’ তিনি বলেছেন, দু’পক্ষকে বুঝিয়ে তিনি পরমাণু যুদ্ধ থেকে বিরত করেছেন। পম্পেও লিখেছেন, ‘সেদিন রাতে একটা ভয়াবহ চরম বিপর্যয় এড়াতে আমরা যা করেছি, সেটা করা আর কোনো দেশের পক্ষে সম্ভব নয়।’

আইএস/এইচএ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়