শিরোনাম
◈ ঘন কুয়াশায় দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় ফেরি চলাচল বন্ধ ◈ নো ম্যানস ল্যান্ডে থাকা রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশ প্রবেশে নিবন্ধন প্রক্রিয়া শুরু ◈ পুলিশ কর্মকর্তার গুলিতে আহত উড়িষ্যার মন্ত্রীর মৃত্যু ◈ কারাগারে অসুস্থ রিজভীর শারীরিক অবস্থার অবনতি ◈ যুক্তরাষ্ট্র ও ইইউ’র উদ্দেশ্যে তুরস্কের পাল্টা ভ্রমণ সতর্কতা ◈ প্রমোদতরী গঙ্গা বিলাস কলকাতায়, মঙ্গলবার আসবে বাংলাদেশে ◈ ভোটের অধিকার ও গণতন্ত্র পনরুদ্ধারে আমরা একমত হয়েছি: মির্জা ফখরুল  ◈ মায়ের কাছেই থাকবে দুই জাপানি শিশু, মামলা খারিজ ◈ নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে জেরুজালেমে হাজার হাজার মানুষের বিক্ষোভ ◈ খোঁজ মিলছে না উকিল আবদুস সাত্তারের প্রতিদ্বন্দ্বী আসিফের

প্রকাশিত : ০৩ ডিসেম্বর, ২০২২, ০৭:৪৮ বিকাল
আপডেট : ০৩ ডিসেম্বর, ২০২২, ০৭:৪৮ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

কৃষকের কোটি টাকার ধান নিয়ে ব্যবসায়ীর গা ঢাকা

ধান

আওরঙ্গজেব হোসেন, রাণীনগর (নওগাঁ): নওগাঁর রাণীনগরে আব্দুল হান্নান (৫০) নামে এক ধান ব্যবসায়ী এলাকার কৃষকদের প্রায় দেড়-দুই কোটি টাকার ধান নিয়ে গা ঢাকা দিয়েছে বলে অভিযোগ ওঠেছে। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ করতে গেলেও পুলিশ অভিযোগ নেয়নি বলে জানিয়েছেন কৃষকরা। ফলে চরম হতাশায় পরেছেন তারা।

তবে পুলিশ বলছে, ভুক্তভোগীদের আদালতের আশ্রয় নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। ভুক্তভোগী কৃষকরা বলেন,উপজেলার পিরেরা গ্রামের মৃত মুনছের আলীর ছেলে আব্দুল হান্নান দীর্ঘ প্রায় আট বছর ধরে উপজেলার বেতগাড়ী বাজারে ধানের আড়ৎ খুলে ব্যবসা করে আসছিলেন। ব্যবসার সুবাদে এলাকার কৃষকরা তার নিকট নগদ-বাঁকীতে ধান বিক্রি করে থাকেন।

এরই মধ্যে ওই এলাকার প্রায় দেড়-দুইশ কৃষকের ধান বাঁকী নেয় ব্যবসায়ী হান্নান। গত সপ্তাহে কৃষকদের ধানের টাকা পরিশোধ করার কথা ছিল। হঠাৎ করেই গত বুধবার রাতে স্ব-পরিবারে ব্যবসায়ী আব্দুল হান্নান ধানের আড়ৎ বন্ধ করে বাড়ী থেকে উধাও হয়ে যান। এরপর থেকে ব্যবসায়ীর ব্যবহৃত মোবাইল ফোন বন্ধ রয়েছে বলে জানিয়েছেন কৃষকরা।

এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার রাতে থানায় লিখিত অভিযোগ দিতে গেলেও থানা পুলিশ কৃষকদের লিখিত অভিযোগ নেয়নি বলে দাবি করেছেন কৃষকরা। উপজেলার মেরিয়া গ্রামের লোকমান আলীর ছেলে কৃষক শহিদুল ইসলাম বলেন, গত ইরি মৌসুম থেকে চলতি আমন মৌসুমের প্রায় ২৯লক্ষ ৫৫হাজার টাকার ধান বাকি বিক্রি করেছেন ব্যবসায়ী হান্নানের নিকট।

গত বৃহস্পতিবারে ধানের ১৫ লাখ টাকা দেবার কথা ছিল এবং অবশিষ্ঠ টাকা আগামী ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে পরিশোধ করার কথা ছিল। কিন্তু এরই মধ্যে ব্যবসায়ী হান্নান বুধবার রাতে হঠাৎ করেই স্ব পরিবারে পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় থানায় লিখিত অভিযোগ দিতে গেলেও পুলিশ অভিযোগ না নিয়ে আদালতে মামলা করার পরামর্শ দিয়ে ছেড়ে দেন। তিনি দাবি করে বলেন, ব্যবসায়ী হান্নান এলাকার প্রায় দেড়-দুইশ’কৃষকের প্রায় দেড়-দুই কোটি টাকার ধান বাকি নিয়ে পালিয়ে গেছেন। ফলে এলাকার কৃষকরা ঋণ পরিশোধ ও আগামী ইরি আবাদ নিয়ে চরম হতাশায় পরেছেন।

পিরেরা গ্রামের আনিছুর রহমানের ছেলে কৃষক শাহীন বাবু বলেন, চলতি মৌসুমে প্রায় ৮বিঘা জমি বর্গা নিয়ে ধানের আবাদ করেছিলেন। জমির ধান কেটে প্রায় এক লাখ পাঁচ হাজার টাকার ধান হান্নানের নিকট বাকিতে বিক্রি দিয়েছেন। টাকা দেবার কথা বলে রাতা-রাতি পালিয়ে গেছে। এতে হালচাষ, কিটনাশক দোকানের বাকিসহ আবাদের জন্য করা বিভিন্ন ঋণ নিয়ে চরম বেকায়দায় পরেছেন। ধান বিক্রির টাকা না পেলে হয়তো আগামী ইরি আবাদ হবেনা বলে জানান তিনি।

এ ব্যাপারে ব্যবসায়ী হান্নানের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। তবে হান্নানের বড় ভাই আব্দুল মান্নান বলেন, আমাদের মূল বাড়ী থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে আলাদা বাড়ী করে বসবাস করছি। আমিও শুনেছি ছোট ভাই হান্নান এলাকার লোকজনের নিকট থেকে ধান নিয়ে পালিয়ে গেছে। তবে কে, কিভাবে লেনদেন করেছে বা কে কত টাকা পাবে তা বলতে পারছিনা।

রাণীনগর থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বলেন, কয়েকজন কৃষক ধানের টাকা নিয়ে ব্যবসায়ী হান্নানের বিরুদ্ধে অভিযোগ দিতে এসেছিলেন। তাদের তথ্য প্রমানাদি 
দেখে আদালতে মামলা করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

প্রতিনিধি/এনএইচ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়