শিরোনাম

প্রকাশিত : ০৬ অক্টোবর, ২০২২, ০৫:৫৩ বিকাল
আপডেট : ০৬ অক্টোবর, ২০২২, ০৫:৫৩ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

কোটচাঁদপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধে ৪ জনকে পিটিয়ে জখম

ফিরোজ আহম্মেদ, কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) :  জেলার কোটচাঁদপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে একই পরিবারের চারজনকে পিটিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলা শহরের মেইনবাসস্ট্যান্ড পাড়ায়। আহতরা হলো জাহাঙ্গীর আলম, তার স্ত্রী, মেয়ে আসমা আক্তার শাপলা ও ছেলে হযরত আলী। 

এরমধ্যে আসমা আক্তার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। বাকিদের প্রাাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হযরত আলী বাদি হয়ে কোটচাঁদপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেন, তার চাচা জুলফিকার আলী ভুট্টা জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রায়ই তাদের গালমন্দ, মারধর ও নানাভাবেহুমকি ধামকি দিয়ে আসছিল। সম্প্রতি জুলফিকার আলী আমাদের চলাচলে পথের কিছু অংশ এবং পানি যাওয়ার ড্রেন বন্ধ করে দেয়। এ নিয়ে আমার বাবা জাাহাঙ্গীর আলমের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে জুলফিকার আলী আমার বাবাকে মাারপিট শুরু করে। আমরা ঠেকাতে গেলে আমার মা, আমার বোন আসমা আক্তার ও আমাকে পিটিয়ে আহত করে। এসময় প্রতিবেশিরা এগিয়ে এসে আমাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। 

হাসপাতালে ভর্তি আসমা আক্তার জানান, আমি ঘটনার দিন বাবার বাড়ি বেড়াতে এসেছিলাম। হঠাৎ বাবাকে মারছে দেখে ঠেকাাতে গিয়েছিলাম। এসময় আমাকেও বেদম মারপিট করে জখম করে। আমাার তিন মাসের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। তাকে নিয়ে এখন আমি হাসপাতালে দিন পার করছি। 

কোটচাঁদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক তারুণী পাশা জানান, আহতদের হাসপাতালে আনার পর তিনজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়। বাকি আসমা আক্তারকে ভর্তি করা হয়। তার শরীরের পিঠে হাতে ও মাথায় জখম ও কাটার দাগ রয়েছে। 

কোটচাঁদপুর থানার ওসি মো. মইনুদ্দিন জানান, দুই ভাইয়ের পরিবারের মধ্যে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেওে মারামারি হয়েছে। এ নিয়ে দুই পক্ষেরই অভিযোগ পেয়েছি। 

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়