শিরোনাম
◈ শান্তি-শৃঙ্খলা ফেরাতে আইনশৃঙ্খলা  বাহিনীকে কঠোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ◈ সরকার আলোচনার কোনো পরিস্থিতি রাখেনি, কর্মসূচী অব্যাহত রাখার ঘোষণা: বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন ◈ বিটিভিতে হামলা-আগুন, সম্প্রচার বন্ধ ◈ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ◈ আমরা ধৈর্যের পরীক্ষা দিচ্ছি, এটা দুর্বলতা নয়: ডিবিপ্রধান ◈ নরসিংদীতে গুলিতে নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থীর মৃত্যু, আহত শতাধিক ◈ চট্টগ্রামে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ২ ◈ নেত্রকোনায় ইউএনও, অতিরিক্ত পুলিশ সুপারসহ আহত অর্ধশত, ৭ আন্দোলনকারী গুলিবিদ্ধ ◈ শান্তিপূর্ণ সমাধানের দিকে এগোতে চায় সরকার: তথ্য প্রতিমন্ত্রী ◈ শিক্ষার্থীদের পরিবর্তে বিএনপি-জামাত আগুন-সন্ত্রাস নিয়ে মাঠে নেমেছে: ওবায়দুল কাদের   

প্রকাশিত : ০৯ জুন, ২০২৩, ১২:০৫ রাত
আপডেট : ০৯ জুন, ২০২৩, ০৪:২৮ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

রামপুরায় স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে

নিনা খান। ছবি: সংগৃহীত

মোস্তাফিজুর রহমান: রাজধানীর রামপুরায় এক নারীকে কুপিয়ে জখম করে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগে তার স্বামীকে হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে মতিঝিল বিভাগের উপ কমিশনার হায়াতুল ইসলাম খান এই তথ্য জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (৮ জুন)  দুপুরে দিকে ঘটনাটি ঘটে।

স্বামী স্ত্রী দুজনেই আলিকো ইন্সুরেন্স কোম্পানিতে চাকরি করেন। স্বামী একটি শাখার ইউনিট ম্যানেজার। তারা সম্পর্ক করে ২০১২ সালে বিয়ে করেন। তাদের কোন সন্তানা নেই। তারা থাকতেন রামপুরার পূর্ব হাজীপাড়া বিসমিল্লাহ টাওয়ারে।

মৃতার ভাগ্নী লিরা খান বলেন, মৃতার স্বামী তাদের কে জানিয়েছেন, নিনা রান্না করতে গিয়ে চুলার আগুন শরীরে লেগে মারা গেছেন। সে সময় তার স্বামী বাহিরে গিয়েছিলেন, ফিরে এসে আগুনে দগ্ধ অবস্থায় তাকে দেখতে পায়। পরে সেখান থেকে তাকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ণ এন্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নিয়ে যান রাতে।

লিরা খান আরো বলেন, বিভিন্ন সময়ে গিয়াস উদ্দিন তার স্ত্রী কে  নির্যাতন করতেন। সব সময় টাকার জন্য মারধর করতেন। বিয়ের সময়ও ২ লক্ষ টাকা যৌতুক নিয়েছে। আজও তিনি তাকে মারধর করেন এবং ধারালো কিছু দিয়ে মাথায় আঘাত করে শরীরে আগুন লাগিয়ে হত্যা করেছেন। মৃতার মাথায় রক্তাক্ত জখম ছিল।

এদিকে, রামপুরা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) তওফিকা ইয়াছমিন বলেন, আমরা ট্রিপল নাইনে সংবাদ পেয়ে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ণ এন্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনিস্টিউটে এসে মরদেহ উদ্ধার করি।

মৃতার পরিবারের লোকজনের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্বামীকে আটক করা হয়েছে। মৃতদেহ টি ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, বিষয়টি তদন্তাধীন রয়েছে। তদন্ত করে ও  ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

নরসিংদী জেলার পলাশ উপজেলার বিরিন্দা গ্রামের মৃত সিরাজ উল্লাহ খাঁন এর মেয়ে। পাঁচ বোন তিন ভাইয়ের মধ্যে তিনি ছিলেন ছোট। সম্পাদনা: সাদেক আলী

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়