প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চলচ্চিত্র ও টিভি চ্যানেলে নারীদের উপস্থিতি নিয়ে কঠোর অবস্থানে তালিবান

ইমরুল শাহেদ: রোববার আফগানিস্তানের তালিবান কর্তৃপক্ষ নতুন একটি ‘ধর্মীয় গাইডলাইন’ জারি করেছে বলে শামা টিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, নারী অভিনীত নাটক ও সুপ অপেরার উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। ‘প্রমোশন অব ভার্স্যু এ্যান্ড প্রিভেনশন অব ভাইস’ মন্ত্রণালয় থেকে এই গাইডলাইন জারি করে বলা হয়েছে, উপস্থাপিকাকে ইসলামিক নিয়মের হিজাব পরতে হবে। মন্ত্রণালয় থেকে আরো বলা হয়েছে, নবী মোহাম্মদসহ এ শ্রেণীর কাউকে নিয়ে যেন টেলিভিশনে কোনো সিনেমা বা প্রোগ্রাম প্রচার করা না হয়। ইসলাম এবং আফগান মূল্যবোধের পরিপন্থী কোনো সিনেমা বা প্রোগ্রাম প্রচার থেকে বিরত থাকার জন্য টিভি চ্যানেলগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। গত ১৫ আগস্ট দেশটির ক্ষমতা গ্রহণ করে তালিবানরা। শুরুর দিকে তারা সংস্কারের প্রতিশ্রুতি দিলেও অনেকে আশঙ্কায় ছিলেন, আস্তে আস্তে কঠোর বিধিনিষেধের দিকে অগ্রসর হবে তারা। বস্তুত হচ্ছেও তাই।

তারা পুরুষদের শরীরের স্পর্শকাতর অংশ প্রকাশ পায় এমন ফুটেজের প্রচার নিষিদ্ধ করেছে। কৌতুক এবং বিনোদন জাতীয় শো’তে ধর্মকে অবমাননা করা হয় অথবা আফগানদের অনুভূতিতে আঘাত হানে- এমন বিষয়কে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তালেবানরা আরো বলেছে, বিদেশি সিনেমা- যেগুলো বিদেশি সংস্কৃতিকে উৎসাহিত করে, এমন সিনেমা প্রচার করা যাবে না। এখানে উল্লেখ্য, আফগানিস্তানের টেলিভিশন চ্যানেলগুলো যেসব সিনেমা বা নাটক প্রচার করে, তার বেশির ভাগেই কেন্দ্রীয় চরিত্রে থাকেন নারী।

দি ট্রিবিউনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আফগান টিভি চ্যানেলগুলোতে বেশির ভাগই দেখানো হয় বিদেশি সিনেমা, যেখান নারী চরিত্রই প্রধান থাকে। আফগান সাংবাদিক সংগঠনের সদস্য হুজ্জাতুল্লা মোজাদ্দেদী গণমাধ্যমকে বলেছেন, নতুন এই বিধিনিষেধ আরোপটা ছিল অপ্রত্যাশিত। তিনি বিবিসিকে বলেছেন, গাইডলাইনের কিছু কিছু একেবারেই অবাস্তব। এগুলো প্রয়োগ হলে টিভি চ্যানেলগুলো বন্ধ করে দিতে হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত