প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরেছেন জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া

মনিরুল ইসলাম: [২] ভারতে চিকিৎসা গ্রহণে সুস্থ হয়ে ৪৯ দিন পরে সংসদ ভবনস্থ বাসভবনে ফিরেছেন ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া।

[৩] বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তিনি ঢাকায় ফিরেন বলে জানা যায়।

[৪] ডেপুটি স্পিকার ও গাইবান্ধা-৫ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মো. ফজলে রাব্বী মিয়া ভারতে গত বুধবার ১৮ আগস্ট সকালে বেনাপোল সীমান্ত পার হয়ে ভারতে যান। দেশটির ভারতের মুম্বাইয়ের টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালে তিনি চিকিৎসা নেন বলে জানা যায়।

[৫] ১৮ আগস্ট বুধবার ৭টার দিকে সংসদ ভবন এলাকার বাসা থেকে ভারতের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেন ডেপুটি স্পিকার। হযরত শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে হেলিকপ্টারযোগে যশোরের বেনাপোল পৌঁছেন তিনি। সেখান থেকে সকাল ১০টায় সীমান্ত পার হয়ে সড়কপথে কলকাতার নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু (দমদম) বিমানবন্দর যান। সঙ্গে তাঁর দুই মেয়ে ফাহিমা রাব্বী রিটা ও ফারজানা রাব্বী বুবলী এবং জামাতা বিচারপতি খুরশীদ আলম সরকার যান।

[৬] জানা গেছে, দীর্ঘ দুই মাসেরও বেশি সময় অসুস্থ ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া। গত জুন মাসে রাজধানীর ল্যাবএইড স্পেশালাইজড হাসপাতালে ওই অপারেশনের মাধ্যমে চার কেজি ওজনের টিউমার অপসারণ করা হয়। এরপর তিনি পুরোপুরি সুস্থ হতে পারেননি। নানা জটিলতা দেখা দেয়। ফলে এক প্রকার গৃহবন্দি জীবনযাপন করছিলেন তিনি। নিউরোসায়েন্স, ল্যাবএইডসহ বিভিন্ন হাসপাতালে অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পরও রোগ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। বিষয়টি নিয়ে ল্যাবএইড হাসপাতালের অ্যাডভাইজার অ্যান্ড চিফ কনসালট্যান্ট সার্জন এবং স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ ও মিটফোর্ড হাসপাতাল সার্জারি বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. খাদেমুল ইসলামের নেতৃত্বে মেডিক্যাল বোর্ড বিদেশি চিকিৎসকদের সঙ্গে পরামর্শ করে। এরপর তাঁকে বিদেশ নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

[৭] পারিবারিক সূত্র জানায়, ডেপুটি স্পিকারের অসুস্থতা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর পরামর্শে করোনা পরিস্থিতির কারণে বিমান যোগাযোগ বন্ধ থাকায় ভারতে নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। সেখানকার বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী ভারতের মুম্বাইয়ের টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে।