প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অপহরণের তিন দিন পর চাচার বাড়ির টয়লেট থেকে শিশুর লাশ উদ্ধার

ডেস্ক নিউজ: মাদারীপুরের শিবচরে চাচার বাড়ির ভবনের নির্মাণাধীন টয়লেটের মেঝের নীচ থেকে শিশুর বালু চাপা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) ভোর রাতে ২ বছর ৪ মাসের শিশুটির লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ। এ হত্যাকাণ্ডে চাচী নার্গিস আক্তার ও চাচাতো বোন হাফসা আক্তারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। খবর যমুনা টিভি

মামলার সূত্রে জানা যায়, নিহত শিশুর চাচী নার্গিস তার স্বামীর মৃত্যুর জন্য শ্বশুর বাড়ির লোকদের দায়ী করতো। সেই শত্রুতার জের ধরে গত মঙ্গলবার নার্গিস ও তার মেয়ে হাফসা দুইজন মিলে চাচা ইসমাইল বেপারির শিশু সন্তান কুতুবউদ্দিনকে অপহরণ করে। পরবর্তীতে শিশুকে না পেয়ে থানায় অভিযোগ করে ওই শিশুর বাবা ইসমাইল। অভিযোগের ভিত্তিতে খোঁজাখুঁজি শুরু করে পুলিশ। পরে একটি মাদ্রাসার সিসিটিভি ফুটেজ দেখে পুলিশ নিশ্চিত হয় হাফসা তার চাচাতো ভাই কুতুবউদ্দিনকে নিয়ে তার মা নার্গিসের কাছে দেয়। কিন্তু নার্গিস বিষয়টি অস্বীকার করে। যদিও জিজ্ঞাসাবাদে সে স্বীকার করে নেয় এবং শিশুর লাশ কোথায় আছে জানায়।

শিবচর থানার ওসি মো. মিরাজ হোসেন বলেন, নার্গিস মূলত তার স্বামীর মৃত্যুর জন্য তার শ্বশুর বাড়ির লোকদের উপর ক্ষিপ্ত, পরবর্তীতে বিয়ে নিয়েও ক্ষুব্ধ ছিল। সে তার মেয়েকে দিয়ে শিশুটিকে কৌশলে নিয়ে আসে। আমাদের ধারণা সে ও তার মেয়ে দুজনে মিলে এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে। নার্গিস নিজেই দেখিয়েছে লাশের অবস্থান।

সর্বশেষ