প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কমতে শুরু করেছে বন্যার পানি, এখন সমস্যা পানিবাহিত রোগ

মারুফ হাসান: [২] উজানে কমেছে বৃষ্টি, তিস্তা ছাড়াও প্রায় সব নদীর পানি কমতে শুরু করেছে। আশা করা যাচ্ছে আগামী ৭ দিন এই পরিস্থিতি অব্যাহত থাকবে। এতে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতির সম্ভাবনা রয়েছে। স্থিতিশীল আছে ঢাকার আশেপাশের নদীগুলোর পানি।

[৩] বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র জানায়, সকল প্রধান নদ-নদীর পানি কমছে। এর ফলে সিরাজগঞ্জ, পাবনা, মানিকগঞ্জ, রাজবাড়ী, ফরিদপুর, মুন্সীগঞ্জ এবং শরীয়তপুর জেলার বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি অব্যাহত থাকতে পারে। এদিকে কমতে শুরু করেছে তিস্তার পানি। তবে পরবর্তীতে তিস্তার পানি কিছুটা বাড়তে পারে।

[৪] পানি কমতে শুরু হরলেও কমেনি মানুষের দুর্ভোগ। পানিবন্দি এসব এলাকার মানুষ খাবার এবং বিশুদ্ধ পানির অভাবের পাশাপাশি ভুগছেন পানিবাহিত রোগেও। ডায়রিয়া, আমাশয়, সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছে বন্যাদুর্গতরা।

[৫] বন্যার সময়ে পানিবাহিত রোগের প্রার্দুভাব দেখা দেওয়াতে জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, “পানিবাহিত রোগ ঠেকাতে ‘সেফ ওয়াটার সাপ্লাই’ নিশ্চিত করতে হবে। পানি ফুটিয়ে বা বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট দিয়ে বিশুদ্ধ করে সেই পানি পান করতে হবে এবং সঙ্গে রাখতে হবে খাবার স্যালাইন। বিশুদ্ধ পানিই পানিবাহিত রোগ থেকে দূরে থাকার অন্যতম উপায়।’

[৬] নীলফামারী, লালমনিরহাট, দিনাজপুর, পঞ্চগড়, রংপুর, ঠাকুরগাঁও, বগুড়া, রাজশাহী, মৌলভীবাজার, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ, নেত্রকোনা, শেরপুর ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। তবে গাইবান্ধা, জামালপুর, কুড়িগ্রাম, সিরাজগঞ্জ ও নওগাঁ জেলার বন্যা পরিস্থিতি এখনও অবনতির দিকে। এসব এলাকায় বিশুদ্ধ পানি না পাওয়ায় পানিবাহিত রোগের প্রার্দুভাব বেড়েছে। পানিবাহিত রোগে আক্রান্ত হয়েও অনেকেই পাচ্ছেন না চিকিৎসাসেবা।

[৭] বন্যা পূর্বাভাস কেন্দ্রের আগামী দশ দিনের পূর্বাভাসে বলা হয়, ব্রহ্মপুত্র, যমুনা নদীর পানির সমতল কমছে। জামালপুর জেলার বাহাদুরবাদ স্টেশন, বগুড়া জেলার সারিয়াকান্দি স্টেশন, সিরাজগঞ্জ জেলার কাজীপুর ও সিরাজগঞ্জ স্টেশন, টাঙ্গাইল জেলার এলাসিনঘাট স্টেশন এবং মানিকগঞ্জ জেলার আরিচা স্টেশনের পানি আগামী ৭ দিনের মধ্যে কমতে পারে। ফলে এসব জেলার নিম্নাঞ্চলের চলমান বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে।

[৮] এদিকে আগামী ৫ দিনে কমতে পারে গঙ্গা ও পদ্মা নদীর পানি। রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ পয়েন্ট, মুন্সীগঞ্জের ভাগ্যকূল এবং মাওয়া পয়েন্টে ও শরীয়তপুরের সুরেশ্বর পয়েন্টে পানি কমতে পারে। ফলে আগামী সাতদিনে চলমান বন্যা পরিস্থিতির আরো উন্নতি হতে পারে।

 

সর্বাধিক পঠিত