প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সিরাজগঞ্জে বালুমহালে ড্রেজার মেশিন ভাল্কহেড ভাংচুর ও মারপিটের অভিযোগ

সোহাগ হাসানঃ [২] জেলার বালুমহালের বালু উত্তোলনের ড্রেজার মেশিন, বালু ভাল্কহেডসহ লেবারদের মারপিট ও ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (১০ আগষ্ট) দুপুরে সদর উপজেলার কৈগারী দোরতা বালু মহালে এধরণের ঘটনা ঘটায়।

[৩] এই ঘটনায় বুধবার (১১ আগষ্ট) সকালে বিএনপি নেতা ও সিরাজগঞ্জ পৌরসভার সাবেক কাউন্সিল আব্দুস ছাত্তার, সফর উদ্দিন, রিপন, টারজান, সোহেল, হেলালের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৫০/৫৫জনের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসকসহ প্রশাসনিক বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ইজারাদার হক ট্রেডার্স এর পক্ষে মো. একরামুল হক রিজভী।

[৪] অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার কৈগারী দোরতা বালু মহাল সরকারীভাবে টেন্ডারের মাধ্যমে ইজারা পেয়েছে মেসার্স হক ট্রেডার্স। গত ১৩/০৪/২০২১ ইং তারিখে ভুমি অফিস কর্তৃক সিমানা নির্ধারণ করে দেয়া হয়। পরে বালু উত্তোলন শুরু করে ইজারাদার মেসার্স হক ট্রেডার্স। বালু উত্তোলনের শুরু থেকে ছাত্তার গংরা বিভিন্ন কৌশলে তাদের নানা হয়রানি করতে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় গত মঙ্গলবার দুপুরে সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের কিছু অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারী, আনসার বাহিনী ও মুখোশধারী কিছু মাস্তান দ্বারা সিমানা নির্ধারণের কথা বলে অতর্কিত ভাবে মারপিট হামলা ও প্রাণনাশের হুমকি দেয়। পরে ডেজার ও ভাল্বহেড মেশিন সরিয়ে নিতে বলে। না নিলে প্রাণে মেরে ফেলবে বলে হুমকি দেয়।

[৫] অভিযোগে আরও বলা হয়েছে, আব্দুস ছাত্তার গংরা একটি নৌকা ও একটি স্প্রিট বোর্ডসহ ৫০/৫৫ মাস্তান দেশীয় অস্ত্রে হাতে নিয়ে বালু উত্তোলন মেশিনের কর্মচারীদের মারপিট করে এবং অস্ত্রের মহরা দেয়। চলতি বছর বালু মহলটি আব্দুস ছাত্তারের হাত ছাড়া হয়ে যাবার পর এলাকায় তার বাহিনীর বৈধ ইজারাদারদের বালু উত্তোলনে বাঁধা ও প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে।

[৬] উল্লেখ্য, গত ২০১২ সালের ২ সেপ্টেম্বর যমুনার বালু খেকো বিএনপি নেতা ও সাবেক কাউন্সিল আব্দুস ছাত্তারের বালু মহাল নিয়ে নদী পথে নিহত হয়েছে আওয়ামীলীগ নেতা ও জেলা মটর শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক, সাবেক কাউন্সিলর নাসির উদ্দিন ও তার শ্যালক টিক্কা।

[৭] এবিষয়ে সাবেক কাউন্সিল আব্দুস ছাত্তারের মুঠোফোনে বার বার ফোন দিলে তিনি ফোন রিসিপ না করায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

[৮] সদর উপজেলা ভুমি কর্মকর্তা রবিন শীষ জানান, বালু মহালের ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তের জন্য বালু মহালে ভূমি অফিস থেকে সার্ভেয়ার পাঠানো হয়েছে।

[৯] সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম জানান, মারপিট ও হুমকি ধামকির বিষয়টি আমার জানা নেই। সেখানে আনসার বাহিনী গিয়েছিল কিনা সেটাও আমি জানিনা। তবে ঘটনাটি শুনে আপনাকে জানাবো বলে ফোন কেটে দেয়।

[১০] ২নং পুলিশ ফাড়ির ইনর্চাজ তরিকুল ইসলাম জানান, ইজারাদার হক ট্রেডার্স এর পক্ষে মো. একরামুল হক রিজভী একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

[১১] এ ব্যাপারে সিরাজগঞ্জের জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহাম্মদ জানান, বালু মহাল নিয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

সর্বাধিক পঠিত