প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সাংবাদিকতায় নিরপেক্ষ হওয়ার লক্ষ্যই সত্যানুসন্ধান

নাঈমুল ইসলাম খান: [২] আমি যখন সাংবাদিকতায় নিরপেক্ষতার আবশ্যিক শর্ত নিয়ে আলোচনা করেছি, তখন কেউ কেউ যুক্তি দিয়েছেন সত্য ও মিথ্যার মধ্যে মাঝামাঝি কোনো নিরপেক্ষ অবস্থান নেই। এই চিন্তা অতি সরলীকৃত এবং নির্ভরযোগ্য নয়।
[৩] সাংবাদিকতায় নিরপেক্ষ থাকলে মিথ্যার সঙ্গে সন্ধি বা পক্ষপাতিত্বের প্রশ্নই আসে না।
[৪] নিরপেক্ষতার আলোচনায় ‘সত্যের প্রতি পক্ষপাতিত্ব’ এভাবেও আলোচনা চলে না। সাংবাদিকতা সবসময়ই পক্ষপাতমুক্ত অর্থাৎ নিরপেক্ষ।
[৫] সাংবাদিকতায় সত্যনিষ্ঠ থাকা নিরপেক্ষতার মতোই পৃথক সর্বোচ্চ গুরুত্বপূর্ণ শর্ত। যে কোনো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সত্য খুঁজে বের করা সাংবাদিকের প্রধান দায়িত্ব।
[৬] দুর্নীতি বিষয়ে সত্য খুঁজে বের করা, অনিয়মের বিষয়ে সত্য প্রকাশ করা, সমাজের অসঙ্গতি এবং সকল বৈষম্যের সত্য তুলে ধরা, এমনকি কোনো কোনো ক্ষেত্রে অন্যায় পক্ষপাতিত্বের সত্যতা উন্মোচন করা সাংবাদিকের জরুরি কর্তব্য।
[৭] আমার বিবেচনায় সাংবাদিকতার আবশ্যিক শর্ত হিসেবে নিরপেক্ষতার চেয়েও সত্যতার গুরুত্ব উঁচুতে। অন্যভাবে বলা যায়, সত্য যদি লক্ষ্য হয়, সেখানে পৌঁছানোর পথ হচ্ছে নিরপেক্ষতা।
[৮] কোনো সত্য প্রকাশিত হলে সেটা কারো পক্ষে বা বিপক্ষে যেতেই পারে। কিন্তু এই যুক্তিতে সাংবাদিকতায় পক্ষপাতিত্ব হয়েছে এমন অভিযোগ তোলা বাঞ্ছনীয় নয়।  অনুলিখন: জেরিন আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত