প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] প্রণোদনা তহবিল থেকে কম সুদে ঋণ চেয়ে চট্টগ্রামে সমমনা শ্রমজীবি সমবায় সমিতি’র সংবাদ সম্মেলন

রিয়াজুর রহমান রিয়াজ : [২] করোনাভাইরাসের প্রকোপ মোকাবিলায় বাংলাদেশ ব্যাংক ঘোষিত প্রণোদনা তহবিল থেকে কম সুদের ঋণ প্রদানের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নিকট দাবী জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন চট্টগ্রামের সমমনা শ্রমজীবি সমবায় সমিতি লিমিটেড।

[৩] শনিবার (৭ আগস্ট) বিকাল ৫ টায় নগরীর চকবাজারস্হ সমিতির নিজস্ব কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সমিতির পরিচালক কনোজ কুমার শীল।

[৪] লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন- আমারা আমাদের ক্ষুদ্র ঋণ সমবায় সমিতিগুলোকে মহামারি করোনার করাল থাবা হতে রক্ষার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট প্রণোদনার জন্য আবেদন করছি। এই মানবদরদী জননেত্রী আমাদের দিকে তাকালে অসংখ্য অসহায় পরিবার বেঁচে যাবে।

[৫] ক্ষুদ্র ঋণের সাথে অধিকাংশ ক্ষুদ্র ব্যাবসায়ী এবং সাধারণ দরিদ্র শ্রেণির গ্রাহক জড়িত। আমাদের সমমনা শ্রমজীবি সমবায় সমিতি লিমিটেড এর আওতাধীন প্রায় ৫০০ গ্রাহক রয়েছে।

[৬] তিনি আরো জানান, আমাদের বর্তমান অবস্থা অত্যন্ত নাজুক হয়ে পড়েছে। অমরা স্বাস্থ্য কর্তার নির্দেশ মানতে বাধ্য। এমতাবস্থায় সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা পারছি না গ্রাহক হতে আমাদের দৈনন্দিন কালেকশন যা আমরা ঋণদানের বিপরীতে করতাম তা করতে। কারণ গ্রাহক আমাদেরকে চলমান লকডাউনের কারণে কালেকশন দিতে অপরাগতা প্রকাশ করছে। অন্যদিকে সঞ্চয়ীতে যারা আছে তারা প্রত্যেকেই তাদের জমানো টাকার লভ্যাংশ সহ ফেরত চাইছেন। সৃষ্টি হয়েছে উভয় সংকট। কালেকশন উত্তোলন করতে না পারলেও প্রায় ১৫ হাজার টাকা অফিস ভাড়া ১৫ জন মাঠকর্মীর বেতন প্রায় দেড় লাখ টাকার মত।

[৭] এছাড়া অফিসিয়াল অন্যন্য খরচ যেমন বিদ্যুৎ বিল ২ হাজার টাকার মত, সবমিলিয়ে মাসিক খরচ ১ লাখ ৭০ হাজার থেকে ২ লাখ টাকার মত। আর এমন খরচ ধীরে ধীরে প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাদের মত ক্ষুদ্র উদ্যেক্তাদের অসহায়ত্বের দিকে তাকিয়ে প্রণোদনার ব্যবস্থা করলে এই ক্ষুদ্রঋণ কর্মসূচীর সাথে জড়িত লক্ষ লক্ষ পরিবার বেঁচে যাবে।

[৮] সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন- মোহাম্মদ শফি, সমিতির সহ সভাপতি বিধান কুমার শীল, সাধারন সম্পাদক ভূপেন মজুমদার, কার্যকরি সদস্য দোলন শীল প্রমূখ।

 

সর্বাধিক পঠিত