প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বগুড়ার কৃষকরা ব্যস্ত আমনের চারা রোপনে

বগুড়া প্রতিনিধিঃ [২] বর্তমান করোনার ভয়াবহ পরিস্থিতি অপরদিকে ঈদল আযহাকে সামনে রেখে বগুড়ার নন্দীগ্রামের কৃষকরা আমনের চারা রোপনে ব্যস্ত সময় পার করছে। এ উপজেলার কৃষকরা আমন, ইরি বোরো ধান উৎপাদনে অনেক অভিজ্ঞ।

[৪] এ উপজেলার আবাদি জমির উর্বরতা অনেকটা বেশি। সে জন্যই বছরে ৩ বার ধানের চাষাবাদ করা যায়। পাশাপাশি রবিশস্য’রও চাষাবাদ করা হয়ে থাকে ও শস্যভান্ডার হিসেবে গণ্য করা হয়। শ্রাবণের বৃষ্টির পানিতে কৃষকরা আমন ধানের চারা রোপণ কাজে ব্যস্ত সময় অতিক্রম করছে। এবার বর্ষা মৌসুমে ভালো বৃষ্টিপাত হয়েছে। সেকারণে আবাদি জমিতে বাড়তি পানি সেচ দিতে হচ্ছে না। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে কৃষকরা দ্রুত আমনের চারা রোপন করছে।

[৫] উপজেলা কৃষি অফিস বলছে, চলতি আমন মৌসুমে নন্দীগ্রাম উপজেলায় ২০ হাজার ২শ’ হেক্টর জমিতে আমন ধানের চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এতে ধান উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৮৪ হাজার ১ শ’ ১৪ মেট্রিক টন। ইরি-বোরো মৌসুমে নন্দীগ্রাম উপজেলায় ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। তেমনি কৃষকরা ধানের ন্যায্য মূল্যও পেয়েছে। এতে কৃষকরা অনেকটা খুশি। এজন্য কৃষকরা সোনালী স্বপ্ন নিয়ে আমন ধানের চাষাবাদ শুরু করে দিয়েছে।

[৬] উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আদনান বাবু এ প্রতিবেদক-কে বলেন, কৃষকরা ধান উৎপাদনে অনেক অভিজ্ঞ তাই যথারীতিভাবে আমন ধানের চাষাবাদ শুরু করে দিয়েছে। ইতোমধ্যেই আবাদি জমিতে আমন ধানের চারা রোপণ কাজ পুরোদমে শুরু হয়েছে। শ্রাবণ মাসের মধ্যেই আমন ধানের চারা রোপণ কাজ সম্পন্ন হবে। এবারও আমন ধানের বাম্পার ফলনের লক্ষ্য নিয়ে আমরা মাঠ পর্যায়ে কার্যক্রম শুরু করেছি। আমন ধানের চাষাবাদে কৃষকদেরও অনেকটা আগ্রহ বেশি রয়েছে। এতে ব্যয় কম হলেও ধান উৎপাদন ভালো হয়।

[৭] রন বাঘা গ্রামের কৃষক আবুল কাসেম ২০বিঘা, জমিতে আমনের চারা রোপন করেছি আমার গ্রামের সকরের আমন আমনের চারা রোপনের কাজ শেষ এবং আমাদের আশে পাশে গ্রামের আমনের চারা রোপনের কাজ পুরোদমে চলছে। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত