প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ফুটবলার আরলিং খাবার ও ৪ বোতল শ্যাম্পেনে খরচ করলেন ৫ কোটি টাকা

স্পোর্টস ডেস্ক : [২] ৫ ঘণ্টার খাবার বিল আর ৪ বোতল শ্যাম্পেন। এসব মিলে বিল ৫ লাখ ইউরো। সঙ্গে স্টাফদেরকে উপহার ৩০ হাজার পাউন্ড। গ্রিসের এক দ্বীপে বিলাসবহুল অবকাশ যাপনে গিয়ে এই পরিমাণ অর্থ ব্যয় করেছেন জার্মান ফুটবল ক্লাব বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের তারকা খেলোয়াড় আরলিং হাল্যান্ড। গ্রিসের মিডিয়ায় এমন খবর প্রকাশ হলেও হাল্যান্ড এ খবর প্রত্যাখ্যান করেছেন। তিনি একে ফেক নিউজ বা ভুয়া খবর বলে অভিহিত করেছেন। এ খবর দিয়েছে লন্ডনের অনলাইন ডেইলি মেইল।

[৩] এতে বলা হয়, ডর্টমুন্ড ক্লাবে খেলে প্রতি সপ্তাহে আরলিং হাল্যান্ড এক লাখ ৪০ হাজার পাউন্ড আয় করেন বলে মনে করা হয়। নরওয়ে এবার ইউরো ২০২০ তে কোয়ালিফাই করতে ব্যর্থ হওয়ার পর তার হাতে বেশ মূল্যবান কিছু সময় আছে। ফলে তিনি রকিং স্টাইলে নিজেকে সেলিব্রেট করছেন। সঙ্গে তুলে দিয়েছেন আকাশচুম্বী বিল।

[৪] গ্রিসের স্পোর্টস বিষয়ক পত্রিকা স্পোর্টটাইম দাবি করেছে, তিনি খাবারের পিছনে ব্যয় করেছেন বিপুল পরিমাণ অর্থ। এর অর্থমূল্য ৪ লাখ ৩০ হাজার পাউন্ড। তাও মাত্র ৫ ঘন্টায়। এ অভিযোগের জবাবে আরলিং হাল্যান্ড টুইটারে লিখেছেন, আমার মনে হয় তারা মূল খবর ভুলে গেছে। এটা ভুয়া খবর। এই পোস্টে তিনি ক্লাউন ইমোজি যুক্ত করেছেন।

[৫] কিন্তু খবরকে তিনি চাপা দিয়ে রাখতে পারেননি। বলা হয়েছে, আরলিং হাল্যান্ড উপভোগ করেছেন নামোস দ্বীপ। সেখানে সমুদ্রের পাড়ে একটি মনোমুগ্ধকর কমপ্লেক্সে তিনি সময় কাটিয়েছেন। কেনাকাটা করেছেন। সামুদ্রিক খাদ্যের রেস্তোরাঁ আছে সেখানে। আছে একটি বার। সেখানে সান লাউঞ্জারে কয়েক ডজন মানুষে পূর্ণ থাকে।

[৬] এই দ্বীপটি সেলিব্রেটিদের মিটিংয়ের স্থান বলে পরিচিত। এখানে সমুদ্রে সূর্যস্নানে গিয়েছিলেন তিনি। এ সময় তাকে ঘিরে ছিল বিকিনি পরা যুবতীতে। সব মিলে এসব বিকিনির দাম ২ হাজার ২৫০ পাউন্ড। সঙ্গে ছিল বহুরঙা শার্ট। যার মূল ৬৯৫ পাউন্ড। ছিল ৫৯০ পাউন্ড মূল্যের সুইম শর্টস। ৫৪৫ পাউন্ড মূল্যের মনোগ্রাম বাকেট হ্যাট। একটি প্রমোদতরীতে পার্টি করা মানুষদের সঙ্গে তাকে চুটিয়ে আড্ডা দিতে দেখা গেছে। পরে তাকে বন্ধুদের সঙ্গে আলাদা একটি বোটে দেখা গেছে। তারপরেই তারা ওই সমুদ্র সৈকতে একটি ছবির মতো দ্বীপে গিয়ে হাজির হন। – ডেইলি মেইল/ স্পোর্টসটাইম/ এমজমিন

সর্বাধিক পঠিত