শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৩ জুন, ২০২১, ১০:৫৯ রাত
আপডেট : ২৩ জুন, ২০২১, ১০:৫৯ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

প্রভাষ আমিন: দেশকে আরও এগিয়ে নিতে পরিচ্ছন্ন আওয়ামী লীগ চাই

প্রভাষ আমিন: আওয়ামী লীগকে অনেকবারই ধ্বংস করার চেষ্টা হয়েছে। ষাটের দশকে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ ঘুরে দাঁড়িয়েছে। কিন্তু ৭৫-এ সপরিবারে বঙ্গবন্ধু হত্যার পর অনেকেই ভেবেছিলেন আওয়ামী লীগ বুঝি শেষ। কিন্তু আওয়ামী লীগকে বাঁচিয়ে রেখেছিলো নিবেদিতপ্রাণ কর্মীরা। ১৯৮১ সালে দেশে ফিরে শেখ হাসিনা যে আওয়ামী লীগের দায়িত্ব নিতে পেরেছিলেন, সেটা এই তৃণমূলের কর্মীরা সংগঠনকে বাঁচিয়ে রেখেছিলো বলেই।

শেখ হাসিনা সব সময় কর্মীদের এই ত্যাগের কথা স্বীকারও করেন, ‘আওয়ামী লীগের নেতারা ওলটপালট করলেও কর্মীরা সবসময় ঠিক থাকে।’ ওয়ান ইলেভেনের বিপদে বাঘা বাঘা নেতারা নানা মাইনাস তত্ত্বে মেতে উঠলেও কর্মীরাই শেখ হাসিনাকে রক্ষা করেছেন। বিভিন্ন সময় অনেক ঝড়-ঝাপটা সামাল দিলেও আওয়ামী লীগের সবচেয়ে বড় পরীক্ষা কাল চলছে এখনই। টানা তৃতীয় দফায় ক্ষমতায় থাকাটাই যেন আওয়ামী লীগের সবচেয়ে বড় দুর্বলতা হয়ে দাঁড়িয়েছে। ক্ষমতার প্রবল স্রোতে ভেসে আসা অনেক হাইব্রিড কচুরিপানা এখন আওয়ামী লীগের অগ্রযাত্রাকেই রুখে দিতে চাইছে। আওয়ামী লীগের পরীক্ষিত ত্যাগী নেতাকর্মীরা এখন ব্যাক বেঞ্চার। সবখানেই দাপট সুখ পাখিদের। শেখ হাসিনা অনেক কষ্টে দেশকে যতোটুকু এগিয়ে নেন, এই নতুন আওয়ামী লীগারদের একেকটি অপকর্ম তাকে তার চেয়ে বেশি পিছিয়ে দেয়। সময় এসেছে দলে একটি কঠিন শুদ্ধি অভিযানের। সকল আগাছা দূর করে সংগঠনকে এগিয়ে নিতে পরীক্ষিত ও আদর্শিক নেতৃত্বকে সামনে আনতে হবে।

৭২ বছরে আওয়ামী লীগ দেশকে দিয়েছে অনেক। কিন্তু দেশকে আরও এগিয়ে নিতে পরিচ্ছন্ন আওয়ামী লীগ চাই। শেখ হাসিনা দেশকে উন্নয়নের অন্য স্তরে পৌঁছে দিয়েছেন। কিন্তু পরিসংখ্যানের উন্নতিতে আত্মতুষ্টিতে ভোগার অবকাশ নেই। এখন হতে হবে মানবিক উন্নয়ন, বৈষম্যহীন এবং অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের লক্ষ্যে গণতান্ত্রিক অগ্রযাত্রা। আর এটা করতে হলে আওয়ামী লীগকে হতে হবে পরিচ্ছন্ন, দুর্নীতিমুক্ত এবং আগের মতো সাহসী, অকুতোভয়। লেখক : হেড অব নিউজ, এটিএন নিউজ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়