প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কাকন রেজা : মহাত্মার বংশে চোর এবং দক্ষিণ এশিয়ার অন্ধ সমাজ

কাকন রেজা : মহাত্মা গান্ধীর নাতনির মেয়ের সাত বছরের জেল হয়েছে জালিয়াতির দায়ে। দক্ষিণ আফ্রিকার আদালত আশিস লতা রামগোবিনকে ভারতীয় এক ব্যবসায়ীর সঙ্গে জালিয়াতির দায়ে এই সাজা দেয়। এই খবরটা যখন পড়লাম, তখন দক্ষিণ এশিয়ার কিছু নেতান্ধ পাবলিকের কথা মনে হলো। যারা মনে করেন, নেতার পরম্পরা নেতা, পীরের পরম্পরা পীর, বীরের পরম্পরা বীর হবে। তাদের জন্য এই খবরটা একটা ছবক। জানি, এই ছবক থেকেও ছবক নিতে তারা ব্যর্থ হবেন। তবু খবরটা একটা উদাহরণ হয়ে রইলো। বিশেষ করে দক্ষিণ এশিয়ার জন্য।

মহাত্মা গান্ধীর রক্ত পরম্পরায় চোর জন্ম নিয়েছে এটা কোনো ব্যতিক্রম নয়, স্বাভাবিক। আশিস লতা রামগোবিনের জালিয়াতি ছিলো স্রেফ চুরি। তিনি এক ব্যবসায়ীর টাকা মেরে দিয়েছেন। ভুয়া প্রতিষ্ঠানের কথা বলে তিনি আমদানি শুল্কের জন্য দেওয়া টাকা তিনি নিজ পকেটস্থ করেছেন। না, এটা কোনো অনিয়মের মামলা নয়, জালিয়াতি এবং সরাসরি চুরির মামলা।

আশিস লতা রামগোবিন এই চুরি করেছেন তার পরিবাারিক অবস্থানকে ব্যবহার করে। মামলার বিবরণ থেকে সরাসরি জানাই, ২০১৫ সালে আফ্রিকার এক প্রতিষ্ঠানের অধিকর্তার সাথে আলাপ হয় লতা’র। তিনি সেই অধিকর্তাকে জানান, দক্ষিণ আফ্রিকার হাসপাতাল গ্রুপ নেটকেয়ারের জন্য রেশনের তিনটি কন্টেইনার নিয়ে এসেছেন। এই কন্টেইনারগুলো তিনি শুল্কের টাকা দিতে না পারায় ছাড়াতে পারছেন না। পারিবারিক পরিচিতির জন্য ওই অধিকর্তা লতাকে কন্টেইনার ছাড়ানোর টাকা দেন। পরে দেখা যায় কন্টেইনার আনার নথি ছিলো সম্পূর্ণ জাল। সুতরাং জাল-জালিয়াতি, চুরি ‘বাপু’ তথা মহাত্মা গান্ধীর পরিবারের লোকজনও করতে পারে। তাই ভরসা বংশ পরম্পরায় নয়, ভরসা রাখুন মানুষের জ্ঞান-বুদ্ধি এবং ব্যক্তি চরিত্রের ওপর।

লেখক : সাংবাদিক ও কলামিস্ট

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত