প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

স্বাস্থ্যখাতে দ্বিতীয় কোনো শাহেদ বা সাবরিনা চাই না: বিএসএমএমইউ’র ভিসি

সুজন কৈরী: স্বাস্থ্যখাতে যেনো দুর্নীতি না হয়, সে ব্যপারে সবাইকে সচেতন থাকতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, এ খাতে দ্বিতীয় কোন সাবরিনা-শাহেদ আর চাই না। চিকিৎসক সাংবাদিক পরস্পর সহযোগী উল্লেখ করে তিনি স্বাস্থ্যখাত নিয়ে তথ্যবহুল সংবাদ প্রচারের জন্য সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানান।

রোববার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর রুনী মিলনায়তনে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন (ক্র্যাব) আয়োজিত ‘স্বাস্থ্য বিষয়ক পরামর্শক মনোনয়ন’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ক্র্যাবের সভাপতি মিজান মালিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন আরিফের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা (বাসস) এর পরিচালক মধুসূদন মন্ডল এবং হলি ফ্যামিলি এন্ড রেড ক্রিসেন্ট হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. সালেহ আহমেদসহ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকবৃন্দ।

১৬ জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের সমন্বয়ে গঠিত এ পরামর্শক দল ক্র্যাব সদস্য এবং তাদের পরিবারের স্বাস্থ্য বিষয়ক যে কোন প্রয়োজনে পাশে থাকবে।

প্রফেসর ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ বলেন, বর্তমানে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস নতুন আতঙ্ক। করোনার মতোই এ ফাঙ্গাসের জীবানু বাতাসে ভেসে বেড়ায়। করোনা ও ব্ল্যাক ফাঙ্গাস থেকে রক্ষা পেতে মাস্ক পরুন। ভ্যাকসিন নিলেও মাস্ক ব্যবহার অপরিহার্য। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় বলা যায় ২০২৪ সাল পর্যন্ত মাস্ক ব্যবহার করতেই হবে। গণসমাধি বন্ধ করতে চাইলে মাস্ক ব্যবহারের বিকল্প নেই। বর্তমান সময়ে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস আলোচনায় আছে। যদিও এ ফাঙ্গাসের অস্তিত্ব আরো একশ বছর আগে থেকেই চলছে। তবে বর্তমান সময়ে এর বিস্তার বাড়ছে। করোনায় রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়াই এর অন্যতম কারন। ব্ল্যাক ফাঙ্গাস থেকে বাঁচতে হলেও মাস্ক পরার কোনো বিকল্প নেই জানিয়ে তিনি বলেন, এই ফাঙ্গাসের চিকিৎসার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ইউনিট গঠন করা হয়েছে। ভয়ের কোনো কারণ নেই।

ডা. রোকেয়া সুলতানা বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে নিজেকে সুরক্ষিত রাখতে হলে স্বাস্থ্যবিধি মানার পাশাপাশি পুষ্টিকর এবং ভিটামিন জাতীয় খাবার খেতে হবে।

মধুসূদন মন্ডল বলেন, চলমান দুর্যোগে সাংবাদিক ও চিকিৎসক কাধে কাধ মিলিয়ে কাজ করছেন। আমরা একে অপরের সহযোগী হয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে চাই।

সভাপতির বক্তব্যে মিজান মালিক বলেন, ক্র্যাবের সদস্যরা অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে কাজ করেন। ক্র্যাব সদস্য ও তাদের পরিবারবর্গের স্বাস্থ্য সেবায় পাশে থাকার প্রত্যয় নিয়ে স্বাস্থ্য পরামর্শক প্যানেল গঠন করা হয়েছে। সংগঠনের সদস্যরা প্যানেলের চিকিৎসকদের কাছ থেকে টেলি-মেডিসিন সেবাসহ প্রয়োজনীয় সেবা পাবেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত