প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রংপুরে করোনায় মৃত্যু ৪, শনাক্ত ৭৮

আফরোজা সরকার : [২] রংপুর বিভাগে সরকারি বিধিনিষেধ অমান্য করে বেপরোয়া চলাফেরা ও স্বাস্থ্যবিধি না মানায় বেড়ে চলছে করোনার সংক্রমণ। প্রতিদিন আক্রান্তের সঙ্গে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। করোনাভাইরাসের উচ্চ সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হলে বিপদজনক হয়ে উঠবে ভারতীয় সীমান্ত ঘেঁষা উত্তরের এই বিভাগ।

[৩] বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক কার্যালয় বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দিনাজপুর, রংপুর ও লালমনিরহাটে করোনাভাইরাস আক্রান্ত আরও ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে বিভাগের আট জেলায় নতুন করে ৭৮ জন করোনা পজিটিভ হয়েছেন। সুস্থ হয়েছেন ৪৩ জন রোগী। এ নিয়ে রংপুর বিভাগে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ৩৯৯ জনে পৌঁছেছে।

[৪] বৃহস্পতিবার (০৩ জুন) বিকেলে বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. আহাদ আলী ঢাকা পোস্টকে এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, বিভাগে বর্তমানে ১৯ হাজার ১৩৬ জন করোনা শনাক্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১৭ হাজার ৯২৬ জন।

[৫] স্বাস্থ্য পরিচালক কার্যালয় সূত্র জানিয়েছে, বুধবার (০২ জুন) বিভাগের আট জেলার ৩৯০ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এতে নতুন করে ৭৮ জন করোনা পজিটিভ রোগী পাওয়া গেছে। এ নিয়ে ১ লাখ ৩৪ হাজার ২৪০ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

[৬] গত ২৪ ঘন্টায় বিভাগের দিনাজপুুরে ৩৫, রংপুরে ১৭, ঠাকুরগাঁওয়ে ১৭, কুড়িগ্রামে ৩, গাইবান্ধায় ২, পঞ্চগড়ে ২, লালমনিরহাটে ১ এবং নীলফামারী জেলায় ১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। একই সময়ে দিনাজপুরে ২, রংপুরে ১ ও লালমনিরহাট জেলায় ১ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হয়।

[৭] স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. আহাদ আলী ঢাকা পোস্টকে জানান, বুধবার (০২ জুন) দুপুর পর্যন্ত দিনাজপুুর জেলায় করোনায় ৫ হাজার ৮৯৩ জন আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা ১৪৭ জনে রয়েছে। রংপুর জেলায় ৫ হাজার ৩৮ জন আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে ৯৭ জনের। ঠাকুরগাঁও জেলায় ১ হাজার ৭০৫ জন আক্রান্ত ও ৪০ জনের মৃত্যু, গাইবান্ধা জেলায় ১ হাজার ৭৬৯ জন আক্রান্ত ও ২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

[৮] এছাড়াও নীলফামারী জেলায় ১ হাজার ৫৮৬ জন অক্রান্ত ও ৩৬ জন, কুড়িগ্রাম জেলায় ১ হাজার ২৩৫ জন আক্রান্ত ও ২১ জনের মৃত্যু, লালমনিরহাট জেলায় ১ হাজার ৯১ জন আক্রান্ত ও ১৫ জনের মৃত্যু এবং পঞ্চগড় জেলায় ৮৪৪ জন আক্রান্ত ও ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

[৯] রংপুর মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্তের হার বেড়েছে। রংপুর বিভাগে সবচেয়ে বেশি শনাক্ত ও মৃত্যু দিনাজপুর জেলায়। সম্প্রতি সারাদেশের মধ্যে ৩১ জেলাকে করোনাভাইরাসের উচ্চ সংক্রমণ জেলা হিসেবে দেখানো হয়েছে। এর মধ্যে রংপুর ও নীলফামারী জেলা রয়েছে। যার মধ্যে রংপুরের অবস্থান ২৭ নম্বরে।

[১০] রংপুর বিভাগ সীমান্ত ঘেঁষা হওয়ায় এবং কয়েকটি স্থলবন্দর থাকায় ভারতের ট্রিপল ভ্যারিয়েন্ট করোনা সংক্রমণের উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে সীমান্তের জেলাগুলো। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে বন্দরগুলো দিয়ে মানুষের চলাচল বন্ধ করে দেয়া হলেও প্রতিদিন হাজারেরও বেশি পণ্যবাহী যান চলাচল করছে।

[১১] বিভাগের আট জেলার মধ্যে লালমনিরহাটে বুড়িমারী স্থলবন্দর, কুড়িগ্রামে সোনাহাট স্থলবন্দর, দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর, নীলফামারীর চিলাহাটি ও পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর রয়েছে। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত