প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কুমিল্লায় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

রুবেল মজুমদার : [২] চাঁদাবাজীর প্রতিবাদ করায় কুমিল্লা মহানগর যুবলীগের এক নেতার বাসাবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা-ভাংচুর করেছে সন্ত্রাসীরা। প্রকাশ্যে এই হামলায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও বিচার দাবি করে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভাগী মহানগর যুবলীগ সদস্য জালাল উদ্দিন ভুইয়া।

[৩] বৃহস্পতিবার দুপুরে সদর উপজেলার বলরামপুরের সিংগাপুর মার্কেটে নিজ প্রতিষ্ঠানে সংবাদ সম্মেলন করেন জালাল উদ্দিন।

[৪] এসময় তিনি জানান, গত ৩০ জুলাই স্থানীয় দিদার সমিতি এলাকায় নির্মানাধীন এক বাড়ির মালিকের কাছে চাঁদা দাবি করে মনির-মুনাফের সন্ত্রাসীদল। এসময় বাড়ির মালিকের অনুরোধে চাঁদাবাজিতে বাঁধা দেয় জালাল উদ্দিন। পরে জালাল সেখান থেকে চলে আসলে সন্ত্রাসীরা ক্ষিপ্ত হয়ে আরো দলবল নিয়ে জালালের বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মেসার্স জালাল কন্সট্রাাকশনে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে। হামলার সময়ে সন্ত্রাসীরা আগ্নেয়াস্ত্র, ককটেল ও দেশীয় অস্ত্র প্রদর্শন করে এলাকাবাসীকে ভয় দেখায়। বাড়ি ভাংচুরে বাঁধা দিলে জালাল উদ্দিনের মা’কেও পিটিয়ে আহত করে সন্ত্রাসীরা। এছাড়া ফেরার পথে স্থানীয় দিদার ও দৌলতপুর এলাকার ৯টি বাড়িতে ভাংচুর চালায় তারা।

[৫] সংবাদ সম্মেলনে জালাল জানান, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুর করে দোকানের ক্যাশে থাকা ১ লাখ ২৭ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। তিনটি মোটরসাইকেল ও ২টি অটোরিকশা ভাংচুর করে। এছাড়া তার মা লুৎফা বেগমের ব্যাগে থাকা ৫০হাজার টাকা ও স্বার্নালংকার ছিনিয়ে নেয়। এই ঘটনায় ১ জুন জালাল উদ্দিন বাদী হয়ে ৭ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে কোতয়ালী থানায় মামলা দায়ের করেন।

[৬] সংবাদ সম্মেলনে জালালের মা লুৎফা বেগম জানান, যারা হামলা করে মারধর ভাংচুর লুটপাট করেছে মামলার পর তারা আবার প্রকাশ্যে নানান ধরনের হুমকি ধমকি দিচ্ছে। সিসিক্যামেরার ফুটেজে তাদের ছবিও আছে। আমরা প্রশাসনের কাছে দ্রæত আসামীদের গ্রেপ্তার ও বিচার দাবি করছি।

[৭] সংবাদ সম্মেলনে বাড়িঘর ভাংচুর ও হামলার শিকার হওয়া ভুক্তভোগী দৌলতপুরের সামাদ, হোসনেয়ারা বেগম, রোজিনা বেগম, দেলোয়ার হোসেন, মুজিবুল হকসহ এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত