প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ঈদে অতিরিক্ত খেয়ে ফেললে যা করবেন

ফাতেমা আহমেদ : আগামীকাল পবিত্র ইদ। একমাস সিয়াম সাধনের পর এসেছে আনন্দের দিন। তাই মুসলিমদের ঈদকে ঘিরে আনন্দের সীমা নেই। এই দিন আনন্দের আর একটি প্রধান দিক হচ্ছে মুখরোচক সব খাওয়া-দাওয়া। ঈদে সবার ঘরেই নানা পদের সুস্বাদু খাবার তৈরি হয়। এসব খাবার সহজেই জিভে জল এনে দেয়। বাড়িয়ে দেয় খাওয়ার লোভও। মজাদার খাবার পেলে তাতে ঝাঁপিয়ে পড়ার লোভ সামলাতে পারেন না অনেকেই। দাওয়াতে হোক আর উৎসবে-পার্বণে হোক, একটু বেশি খাওয়ার চিন্তা করে অনেক বেশি খাওয়া হয়ে যায়।

অতিরিক্ত খাওয়ার পর অনেকেই শারীরিকভাবেও অসুস্থ বোধ করতে থাকেন। চলুন জেনে নেয়া যাক সুস্থতা বজায় রাখতে এবার ঈদে বেশি খেয়ে ফেললে কী করবেন। আর কী করলে এই সময়ে বেশি খেয়েও সুস্থ থাকতে পারবেন।
সকালে উঠেই লেবু আর মধু এক গ্যাস হালকা গরম পানিতে গুলে খেলে হজমের জন্য এবং মেদ কমাতে সহায়ক হবে। মিষ্টি খাবার বা চিনিযুক্ত খাবার দুই-একদিনের বেশি না খাওয়াই ভালো।

কোমল পানীয় বা চিনিযুক্ত পানীয় না খাওয়াই ভালো। এসবের বদলে ফলের চিনি ছাড়া জুস, বোরহানি, টক দই, পুদিনা লাচ্ছি, ডাবের পানি ইত্যাদি খেতে পারেন। যারা স্থূলতা, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, কোলেস্টেরল, কিডনির সমস্যা, গেটেবাত, হৃদরোগ ইত্যাদিতে ভুগছেন, তারা অবশ্যই ডাক্তারের বা পুষ্টিবিদের পরামর্শ মতো পরিমিত মাংস এবং অন্যান্য খাবার খাবেন।

মাংস, পোলাও, বিরিয়ানি ইত্যাদি গুরুপাক খাবার যখন খাবেন, তখন খাবারের সঙ্গে প্রচুর সালাদ খাবেন। কারণ সালাদ খাবার হজমে সাহায্য করে। এছাড়া প্রতি বেলার খাবারে অবশ্যই বেশি বেশি সবজি খাবেন। টক দই, বোরহানি, চিনি ছাড়া লেবুর শরবত ইত্যাদি খাবার হজমে সহায়ক। এগুলো খাবার পর খেতে পারেন।
প্রতিবেলা মাংস না খেয়ে একবেলা হলেও মাছ খান। যেমন- রাতের খাবারে মাছ রাখতে পারেন। কারণ মাছে আছে ওমেগা-৩ ফ্যাট, যা শরীরের জন্য ভালো। একবেলা বেশি মাংস খাওয়া হয়ে গেলে অন্যবেলা সবজি, সালাদ, ফল, ডাল খেয়ে ব্যালান্স করুন। খাবার দেখেই ঝাপিয়ে না পড়ে, আস্তে আস্তে খাওয়া শুরু করুন। নিজেকে সংযত করুন এবং পরিমিত আহার করুন।

খাবার আগে পানি খেয়ে নিন অথবা দাওয়াতে যাওয়ার আগে সালাদ, ফল ইত্যাদি কম ক্যালরির সহজ পাচ্য খাবার বা পানীয় খেয়ে নিন। তাহলেও কম খাওয়া হবে। ঈদে যেহেতু গরু, খাসি মাংসের ছড়াছড়ি, তাই মাংস খাওয়ার লোভ সামলানো দায়। তবে যখন খাবেন তখন অল্প পরিমাণে খান। কেননা লাল মাংসে অনেক ফ্যাট থাকে। কোনো বেলা বেশি খেয়ে ফেললে বা দাওয়াত থাকলে অন্য বেলা রুটি, সালাদ বা স্যুপ খেয়ে ব্যালান্স করুন। সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ, পপসুগার, প্রিয় ডটকম।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত