প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বাংলাদেশে মাথাপিছু জমির পরিমাণ কমছে, প্রতিবছর প্রায় ২২ লাখ মানুষ বাড়ছে: কৃষিমন্ত্রী

সমীরণ রায়: [২] ড. আব্দুর রাজ্জাক আরও বলেন, দেশে জনসংখ্যা বাড়ছে। এই বিপুল পরিমাণ মানুষের খাদ্য চাহিদা যোগান দেওয়া কঠিন চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এসব চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ইতোমধ্যে ধানের অনেক নতুন জাত উদ্ভাবিত হয়েছে। ক্রমশ জনসংখ্যা বাড়লেও খাদ্য নিরাপত্তার চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করা সম্ভব হচ্ছে।

[৩] তিনি বলেন, আগে বরেন্দ্র অঞ্চলে একবার ধান হতো। এখন কয়েকবার ধানের আবাদ হচ্ছে। আগের চেয়ে উন্নত জাতের ধান আবাদ করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে গবেষকরা ব্রি-৮১, ৮৮, ৮৯, ৯২, ৯৬ জাতের ধান উদ্ভাবন করেছেন। এছাড়াও বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আরেকটি নতুন জাতের ধান ব্রি-১০০ উন্মুক্ত করা হয়েছে।

[৪] তিনি আরও বলেন, ব্রি- ৮১ জাতের ধান চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১ বিঘা জমিতে ৩১ মণ ফলন হয়েছে, এর চেয়ে বেশি কি হতে পারে। এই ধান সারাদেশে ছড়িয়ে পড়বে। আগে কৃষকরা ২৮ ধান উৎপাদন করতো, এখন ব্রি-৮১ জাতের উচ্চ ফলনশীল জাতটি চাষের ব্যাপারে আগ্রহ দেখাচ্ছে।

[৫] কৃষিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। এ ধারাকে অব্যাহত রাখতে আরও পরিশ্রম করতে হবে। সরকার কৃষি যান্ত্রিকরণের জন্য ৩ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন। কৃষি বান্ধব সরকার কৃষিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে যুগোপযোগি পদক্ষেপ গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। ফলে বাংলাদেশ হবে আধুনিক কৃষি দেশ, বাণিজ্যিক কৃষির দেশ।

[৬] তিনি বলেন, রাজাকার-আলবদরদের মতো বাংলার মটি থেকে হেফাজতে ইসলামের মূল উৎপাটন করা হবে। বাংলাদেশ কোনদিন তালেবান-আল কায়েদার দেশ হবে না।

[৭] বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনষ্টিটিউট ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর আয়োজিত চাপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরের চিনিয়াতলায় ব্রি-৮১ জাতের ধান কর্তন ও কৃষক সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

[৮] জেলা প্রশাসক মো. মঞ্জুরুল আফিজের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ- ১ আসনের এমপি ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল, এমপি ফেরদৌসী ইসলাম জেসী প্রমুখ।

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত