প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

লকডাউন শিথিলে ব্রিটেনে কনডম বিক্রি বেড়েছে

রাশিদ রিয়াজ : কনডম কোম্পানিগুলো বলছে তাদের বিক্রি বৃদ্ধির কারণ হচ্ছে লকডাউন শিথিল হতে শুরু করায় মানুষের মধ্যে যৌনতা বাড়ছে। চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে ডিউরেক্স কোম্পানি তাদের কনডম বিক্রি বৃদ্ধির হার ডাবল ডিজিটে বেড়েছে বলে জানিয়েছে। লকডাউন শিথিল ছাড়াও বিধিনিষেধ হালকা হওয়ার কারণে মানুষের মেলামেশা বৃদ্ধি পাচ্ছে। ব্রিটিশরা মহামারীর কবল থেকে অনেকটাই হাফ ছেড়ে যৌনতায় মনোযোগ দিতে শুরু করেছে। আগামী ১৭ মে ব্রিটেনে লকডাউন পুরোপুরি প্রত্যাহারের সম্ভাবনা রয়েছে। একই সঙ্গে জুন মাসে কোভিড পাসপোর্ট অর্থাৎ দুই ডোজ টিকা দেওয়ার ছাড়পত্র নিয়ে ব্রিটিশ নাগরিকরা ইউরোপের ২৭টি দেশে ভ্রমণে যেতে পারবেন। তখন স্বাভাবিকভাবে কনডম বিক্রি আরো বাড়বে বলে কোম্পানিগুলো আশা করছে। অথচ মহামারীতে গত বছর প্রথম ত্রৈমাসিকে কনডম বিক্রি হার পেয়ে তা শতাংশে সিঙ্গেল ডিজিটে নেমে যায়। ডেইলি স্টার ইউকে

কনজ্যুমার গুডস কোম্পানি রেকিট রেকন শীর্ষ নির্বাহীরা বলছেন সামাজিক মেলামেশা যত বাড়বে ততই মানুষের মধ্যে বিধিনিষেধ নিয়ে আতঙ্ক দূর হবে এবং তারা হিমশিম খাওয়ার পরিবর্তে ঘনিষ্ট হতে চাইবেন। গত বছর মহামারী শুরু হওয়ার পর মানুষের মধ্যে যৌনতা ব্যাপকভাবে হ্রাস পায় এর মূল কারণ ছিল উদ্বেগ। উদ্বেগ কেটে যাওয়ার সাথে সাথে বিধি নিষেধ হালকা হলে আমাদের পণ্যের চাহিদা স্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পাবে।

এপ্রিলে ব্রিটেনে টিকাদান কর্মসূচি বেশ সফল হওয়ার সাথে সাথে ধীরে ধীরে বিধিনিষেধ আলগা হতে শুরু করে। ঘরের বাইরে ৬ জন বা দুটি পরিবার একত্রে মিলতে পারছে। ব্যক্তিগত বাগানেও যাতায়াতের সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। একই সঙ্গে পাব ও রেস্টুরেন্টগুলো আউটডোর সার্ভিস দিতে শুরু করেছে। গত গ্রীষ্মে ডিউরেক্স কোম্পানি এর পণ্য বিক্রি বৃদ্ধির কথা জানায় এবং তখন প্রথমবারের মত বিধি নিষেধ শিথিল হতে শুরু করেছিল। এরপর কোভিডের দ্বিতীয় ওয়েভ শুরু হলে ফের বিধিনিষেধ কঠোর হতে শুরু করে। বসন্তে ডিউরেক্সের এধরনের পণ্য বিক্রি ফের হ্রাস পেতে থাকে। রেকিট জানায় মহামারীর মধ্যে তাদের পরিচ্ছন্ন জীবাণুনাশক সামগ্রী লাইজন ও ডেটল বিক্রি বেড়ে যায় কারণ মানুষের মধ্যে স্বাস্থ্যকর অভ্যাস বৃদ্ধি পায়।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত