প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রুমি আহমেদ: সীমান্তবর্তী শহর গুলোতে খুব দ্রুত মিটিগেশন ও প্রিভেন্টিভ ও প্রিপারেটরি ব্যবস্থা নেয়া দরকার

রুমি আহমেদ: ভারতে এখন যেই কোভিড ওয়েভ চলছে তা ডোমিন্যান্ট করছে ই ১ .৬১৭ (ডাবল মিউটেন্ট) ভ্যারিয়েন্ট। দ্বিতীয় কমন ভ্যারিয়েন্ট হচ্ছে ই ১.১১৭ (ব্রিটিশ ভ্যারিয়েন্ট) এবং তৃতীয় কমন হচ্ছে ই ১.৬১৮ (ত্রিপল মিউটেন্ট বা বেঙ্গল স্ট্রেইন)। তবে এই ক্রমটা বদলাতে পারে খুব কম সময়ে ও হয়তো বদলে গেছে এরই মধ্যে। বাংলাদেশে এমনই ভাবে সাউথ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট খুব দ্রুত ডোমিন্যান্ট হয়ে গিয়েছিলো।

আশার কথা হচ্ছে সম্প্রতি হায়দারাবাদে ভারতীয় মোলেকুলার বায়োলজি সংস্থায় হওয়া এক গবেষণায় জানা যায় যে কোভিশিল্ড ভ্যাকসিন খুব সাফল্যের সঙ্গে এই তিনটা ভ্যারিয়েন্ট এর ভাইরাস কেই প্রতিরোধ করতে পারে। আরেকটা ব্যাপার আলোচনা করা দরকার- পুরো বাংলাদেশের কথা জানি না- তবে আমার ধারণা ঢাকা শহরে গত দুই ওয়েভে যেই পরিমাণ মানুষ সিম্পটম সহ ও সিমটম ছাড়া ইনফেক্টেড হয়েছেন- তাতে ঢাকা শহর হয়তো নুতন একটা ওয়েভ থেকে প্রটেক্টেড থাকবে। আমি আশা করি বেঙ্গল স্ট্রেইন ঢাকাতে তেমন স্ট্রেইন ফেলবে না। যেমন ঢাকার সাউথ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট তেমন প্রভাব ফেলেনি ওয়েস্ট বেঙ্গলে।

তবে সীমান্তবর্তী শহরগুলোর ক্ষেত্রে এ কথা বলা যায় না- এবং সীমান্তবর্তী শহর গুলোতে খুব দ্রুত মিটিগেশন ও প্রিভেন্টিভ ও প্রিপারেটরি ব্যবস্থা নেয়া দরকার। যা হচ্ছে কঠোর বর্ডার কন্ট্রোল লকডাউন ও হাসপাতাল ইনফ্রাস্ট্রাকচার বিল্ডিং। ফেসবুক থেকে আমিরুল

সর্বাধিক পঠিত