প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বন্যপ্রাণী হত্যায় সর্বোচ্চ শাস্তির বিধান চালুর দাবি জানিয়েছে সবুজ আন্দোলন

সমীরণ রায়: [২] বুধবার বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবস উপলক্ষ্যে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান বাপ্পি সরদার বলেন, মানুষের যেমন জীবন আছে তেমনি বন্যপ্রাণীরও জীবন আছে। পৃথিবীতে জীবন চলার জন্য বিভিন্ন রকম পেশা থাকলেও অনেকে অবাধে বন্য প্রাণী হত্যা করছে। ইতোমধ্যে পৃথিবী থেকে অনেক প্রাণী হারিয়ে গেছে। মানব সভ্যতার উৎকর্ষতার সঙ্গে সঙ্গে আমাদেরকে মনে রাখতে হবে সমাজ ও সভ্যতাকে টিকিয়ে রাখতে টেকসই উন্নয়নের কোনো বিকল্প নেই। যে কোনো ধরনের প্রাণী বাঁচাতে আমাদের সবাইকে সচেতন হতে হবে। বন্যপ্রাণী হত্যায় প্রচলিত আইনে সামান্য জরিমানা ও জেল খাটার বিধান থাকলেও দুষ্কৃতকারীরা তোয়াক্কা করছে না। তাই অনতিবিলম্বে সর্বোচ্চ শাস্তির বিধান চালু করতে হবে। আগামী প্রজন্মের নিরাপদ পৃথিবী গড়তে বন্যপ্রাণী সংরক্ষণের কোনো বিকল্প নেই।

[৩] সংগঠনের পক্ষ থেকে ৯টি প্রস্তাবনা তুলে ধরা হয়। এর মধ্যে রয়েছে-১. বন্যপ্রাণীসহ যে কোনো প্রাণী হত্যা সর্বোচ্চ শাস্তির বিধান চালু, ২. বনের জায়গা ধ্বংস করে কোনো স্থাপনা নির্মাণ করা যাবে না এবং উন্নয়ন প্রকল্প সম্প্রসারণে বৃক্ষ কর্তন করা যাবে না। ৩. সুন্দরবনের বাঘ সংরক্ষণ ও অন্যান্য প্রজাতিকে নিরাপদ করতে পর্যটকদের জন্য সুযোগ সুবিধা বাড়ানো ও ঘোরাঘুরিতে বেশ কিছু বিধিনিষেধ আরোপ করতে হবে। ৪. মানুষের জীবিকা নির্বাহে গাছ কাটা ও বন্যপ্রাণীর চামড়া, দাঁত ও অন্যান্য উপকরণ সংগ্রহ করা বন্ধে পরিবেশ ও বন অধিদপ্তরকে ভূমিকা পালন করতে হবে। ৬. বন্য প্রাণী হত্যা বন্ধ ও পর্যটন খাতের উন্নয়নে"ইনভাইরনমেন্ট পুলিশ"বাহিনী তৈরি করতে হবে। ৭. বন অধিদপ্তরের সক্ষমতা বাড়াতে অর্থ বরাদ্দ বাড়াতে হবে। ৮. বন্যপ্রাণীর রাস্তা পারাপারে ইকো ব্রিজ কিংবা আন্ডারপাস নির্মাণ প্রকল্প চালু করতে হবে। ৯. পরিবেশ ও বন অধিদপ্তরের দুষ্কৃতকারী কর্মকর্তাদের দুর্নীতি ও অনিয়ম বন্ধে কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে হবে।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত