প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] চাঁদপুরে আগুনে পুড়ে স্কুলশিক্ষিকার মৃত্যু

চাঁদপুর প্রতিনিধি: [২] শুক্রবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) ভোরে উপজেলার পশ্চিম চরকৃষ্ণপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করেছে। নিহত শিখা রানী মজুমদার (৫৫) পেশায় স্কুল শিক্ষিকা ছিলেন।

[৩] এ ঘটনার পর পুলিশের কয়েকটি সংস্থা তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করেছে। নিহত শিখা রানী মজুমদার পেশায় স্কুলশিক্ষক ছিলেন।

[৪] স্থানীয়রা জানিয়েছেন, বেশ ভদ্র এবং বিনয়ী ছিলেন তিনি। তবে কী কারণে তিনি আগুনে পুড়ে মারা গেছেন তা জানাতে পারছেন না স্বজন এবং প্রতিবেশীরা। এদিকে আগুনে পুড়ে রহস্যজনক এমন মৃত্যুর ঘটনা খতিয়ে দেখতে তদন্ত কার্যক্রম শুরু করেছে পুলিশ।

[৫] পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, চাঁদপুরের হাইমচর কিন্ডারগার্টেন নামে একটি শিশু স্কুলের শিক্ষিকা ছিলেন শিখা । ভোরে বাড়ির উঠানে গায়ের আগুন লাগে শিখা রানী মজুমদারের (৫৫)। এ সময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে যান। কিন্তু ততক্ষণে আগুনে পুড়ে ছাই তার দেহ। এই ঘটনার পর জেলারপুলিশ সুপারসহ অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং হাইমচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে ছুটে যান। পুলিশ জানিয়েছে, আগুনে শিখা রানী মজুমদারের পুরো শরীর পুড়ে গেছে।

[৬] নিহতের বড় ভাইয়ের স্ত্রী সবিতা রানী মজুমদার জানান, রাতে এক সঙ্গে তারা ঘুমিয়ে ছিলেন। ভোরে অন্যদের চিৎকারে তার ঘুম ভাঙে। এ সময় বাড়ির উঠানে ননদের পুড়ে যাওয়া দেহ দেখতে পান তিনি। কীভাবে কখন ঘুম থেকে ওঠে ননদ উঠানে গেলেন তা জানাতে পারেননি তিনি। স্থানীয়রা জানান, পঞ্চাশোর্ধ্ব এবং অবিবাহিত শিখা রানী মজুমদার বাবার বাড়িতে থাকতেন। সেখানে বড় ভাই মৃত শক্তি মজুমদারের স্ত্রী সবিতা রানী মজুমদারের সঙ্গেই তিনি বসবাস করতেন। সেখানে তারা দুজন ছাড়া আর কেউ থাকতেন না। কারো সঙ্গে তার শত্রুতা ছিল কি না তার জানা নেই তাদের। এমন মৃত্যুতে তারাও শোকাহত।

[৭] এদিকে পিবিআইর চাঁদপুর অঞ্চলের পরিদর্শক কবির হোসেন জানান, ঘটনাস্থল থেকে ফরেনসিক রিপোর্ট তৈরি করতে প্রয়োজনীয় আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। অন্যদিকে জেলা পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান জানান, রহস্যজনক এই মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হতে পুলিশ তদন্ত কাজ শুরু করেছে। তিনি আশা করছেন, দ্রুত সময়ের মধ্যে আগুনের বিষয়টি উদঘাটন করতে পারবে তদন্তসংশ্লিষ্টরা।

[৮] দুপুরে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে হাইমচর থানা পুলিশ। তবে এখনো কেউ বাদী হয়ে থানায় মামলা করেনি।

সর্বাধিক পঠিত