প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] জালনোট দিয়ে অনলাইনে পণ্য সামগ্রী ক্রয় চক্রের ২ জন সদস্য গ্রেপ্তার

রাজু চৌধুরী: [২] জাল টাকা ব্যবহার করে অভিনব কায়দায় অনলাইন হতে মোবাইল ক্রয়-বিক্রয় প্রতারক চক্রের ২ সদস্যকে ৩,৩৪,০০০ টাকার জাল নোট সহ এমন একটি প্রতারক চক্রের দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে নগর পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম এন্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি)।

[৩] সোমবার (২৮ ডিসেম্বর) পুলিশ জানায়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মোবাইল বিক্রির বিজ্ঞাপন দেখে যোগাযোগ। এরপর ক্রেতা সেজে জাল টাকা দিয়ে মোবাইল নিয়ে সটকে পড়েন।

[৪] দুই ভুক্তভোগীর কাছ থেকে লিখিত অভিযোগ পেয়ে রবিবার (২৭ ডিসেম্বর) তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় অভিযান চালিয়ে নগরীর বন্দর এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

[৫] সম্প্রতি আমেরিকা প্রবাসী এক ব্যক্তি দেশে আসার পরে তার সদ্য ক্রয়কৃত মোবাইল সেট বিক্রির জন্য ফেইসবুকে বিজ্ঞাপন দিলে উক্ত মোবাইল সেট ক্রয় করার জন্য ক্রেতা সেজে একজন প্রতারক তার ভুয়া ফেইসবুক আইডি হতে তার সাথে যোগাযোগ করে। প্রতারক চন্দনপুরা এলাকায় গিয়ে ৭৮,০০০ টাকা প্রদান করে উক্ত মোবাইল সেট টি নিয়ে চলে যায়। পরবর্তীতে বিক্রেতা বুঝতে পারেন যে ক্রেতাদের প্রদানকৃত ৭৮,০০০ টাকার পুরোটাই জাল নোট এবং তিনি প্রতারিত হয়েছেন বুঝতে পেরে কাউন্টার টেরোরিজম বিভাগের সাইবার ইউনিটে একটি প্রতারণার অভিযোগ দেন।

[৬] জানা যায়, গত ১৮ ই জুলাই তারিখে ঠিক একই ধরনের একটি ঘটনায় একই মোবাইল নাম্বারধারী প্রতারক নগরীর হালিশহর থানা এলাকা হতে একজন শিক্ষার্থীর মোবাইল নগদ ৮০,০০০/- টাকার জাল নোট দিয়ে প্রতারনা করে মোবাইলটি হাতিয়ে নেয়।

[৭] ঘটনাগুলো সাইবার ক্রাইম ইউনিটের নজরে আসলে অভিযোগ তদন্তে মাঠে নামে সাইবার টিম। তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় মূল প্রতারক মহিউদ্দিন আল আজাদ প্রকাশ মহিন খাঁন(২৬), পিতা- মৃত মোঃ শামসুল আলম, সাং-বকশিয়া ঘোনা, চমন খায়েরের বাড়ী, রাজাখালী ইউপি, ০৬নং ওয়ার্ড, থানা-পেকুয়া, জেলা-কক্সবাজার বর্তমানে আসমত আলী সারেং বাড়ি, ৩য় তলা, ৩৭ নং আদর্শ পাড়া রোড, থানা-বন্দর, জেলা- চট্টগ্রামকে গত ২৭ ডিসেম্বর বন্দর এলাকা হতে গ্রেপ্তার করা হয়। তার দেওয়া তথ্য মতে তার বাসা হইতে ৩৪,০০০/- জাল নোট, প্রতারনা করে ক্রয়কৃত ০৪ টি মোবাইল উদ্ধার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায় সে দীর্ঘদিন ধরে জাল টাকা ব্যবহার করে অনলাইনে মোবাইল, ল্যাপটপ ক্রয় এবং অন্যান্য প্রতারনা করে আসছে।

[৮] পুলিশ জানায়, তার দেওয়া তথ্য মতে জাল টাকার উৎস খুঁজতে গিয়ে মো. মারুফ মোল্লা(২৮), পিতা- মৃত মো. মাহবুব মোল্লা, মাতা- সালমা বেগম, সাং-দেবপাড়া, মোল্লা বাড়ী, গুটাপাড়া ইউপি, ০৬নং ওয়ার্ড, থানা-বাগেরহাট সদর, জেলা-বাগেরহাট কে একই দিন বন্দর থানা এলাকা হতে ৩,০০,০০০/= টাকার জাল নোট ও ০২টি মোবাইল ফোন, আটক করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায় দীর্ঘদিন ধরে বাগেরহাট থেকে সে জাল নোট সংগ্রহ করে এই প্রতারনামূলক কর্মকান্ড চালিয়ে আসছে। জাল নোট ছাপানো চক্রের অন্যান্য সদস্যদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে এবং সিএমপি’র বন্দর থানায় নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে। সম্পাদনা: ফরহাদ বিন নূর

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত