প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রধানমন্ত্রীকে খুদে বার্তা, ঘর ও জমি পেল কিশোর মামুনের পরিবার

ডেস্ক রিপোর্ট : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে মোবাইল খুদে বার্তা দিয়ে পাওয়া সরকারি খাস জমি ও নব নির্মিত ঘরের চাবি এবং দলিল বুঝে পেয়েছে সেই হতদরিদ্র কিশোর মামুন পরিবার। সোমবার কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন আনুষ্ঠানিকভাবে কিশোর মামুন পরিবারের কাছে ঘরের চাবি ও দলিল হস্তান্তর করেন।

টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউনিয়নের কেরুনতলী গ্রামে কিশোর মামুনের পিতা রিকশাচালক রমজান আলীর নামে বিশ শতক জমি দীর্ঘমেয়াদী বন্দোবস্ত দেওয়া হয়। সেই জমিতে একটি নতুন বাড়িও নির্মাণ করে দেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে কিশোর মামুনের পরিবারকে জমি ও ঘরটি প্রদান করা হয়।

সোমবার সকালে জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন নবনির্মিত ঘরটিতে গিয়ে কিশোর মামুন, তার পিতা রিকশাচালক রমজান আলী ও তার মা ফাতেমা খাতুনের হাতে চাবি ও দলিল তুলে দেন। এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. আমিন আল পারভেজ, টেকনাফের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আবুল মনসুর, টেকনাফের উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মো. নুরুল বশর, হোয়াইক্যং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি হারুন সিকদার, হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রাশেদ মোহাম্মদ আলী ও হোয়াইক্যং ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নুর আহমদ আনোয়ারীসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। জেলা প্রশাসক দরিদ্র রিকশাচালককে একটি ইজিবাইকও দেওয়ার আশ্বাস প্রদান করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি এড়ায়নি সেই কিশোরের দেওয়া খুদে বার্তাও (ম্যাসেজ)। দেশের এক প্রান্ত সুদূর টেকনাফের এক অজপাড়ার কিশোরের খুদে বার্তাটিও যেন প্রধানমন্ত্রীর কাছে কোন ফেলনা বিষয় নয়। এমন একটি মোবাইল বার্তা নিয়েও সাড়া দিয়েছেন তিনি (প্রধানমন্ত্রী)। কিশোরের মোবাইল বার্তা পেয়েই প্রধানমন্ত্রী কক্সবাজারের জেলা প্রশাসককে নির্দেশ প্রদান করেন ওই কিশোরকে জমি ও ঘর দেওয়ার জন্য। এ সংক্রান্ত একটি স্বচিত্র প্রতিবেদন রবিবার কালের কণ্ঠ অনলাইনে প্রকাশ হয়েছে।

সূত্র-কালেরকণ্ঠ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত