প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কুয়াকাটা পৌর নির্বাচনে আ’লীগ নেতার বিনিয়োগে বিএনপির মেয়র প্রার্থী!

ডেস্ক রিপোর্ট : পটুয়াখালীর কুয়াকাটা পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতার (বর্তমান মেয়র) বিনিয়োগে বিএনপি প্রার্থীকে মাঠে সক্রিয় রাখতে জোর লবিং চালা‌নোর খবর কুয়াকাটার সর্বত্র ভে‌সে বেড়াচ্ছে।

ইতোমধ্যে নির্বাচনী ব্যয় হিসেবে নগদ ২০ লাখ টাকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ওই আওয়ামী লীগ নেতার পক্ষ থেকে ব্যাপক দেনদরবার চালা‌নো হচ্ছে বলে নির্ভর‌যোগ‌্য সূত্র নিশ্চিত করেছে।

কুয়াকাটা পৌরসভার রাজনৈতিক মাঠে ঝিমিয়ে পড়া বিএনপিকে সরব রাখতে কয়েকদফা পৃথক গোপন মিটিংও করেছেন প্রভাবশালী ওই আওয়ামী লীগ নেতা। তার মতে, মেয়র পদে সম্ভাব্য স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে (সাবেক জাতীয়পা‌র্টির সভাপতি) আনোয়ার হাওলাদারের ভোটব্যাংকে বিএনপির ভোট যুক্ত হলে বর্তমান মেয়রের নিশ্চিত ভরাডুবির আশঙ্কা রয়েছে। তাই তিনি চাইছেন বিএনপিকে যে কোনো মূল্যে ভোটের মাঠে ধরে রাখতে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বর্তমান মেয়রের এক কর্মী জানান, স্বতন্ত্র প্রার্থীর ভোট ব্যাংকে হানা দিতে ধানের শীষ প্রতীকের বিকল্প নেই। ওই কর্মীর মতে, বিএনপির প্রার্থী না থাকলে তাদের ভোট স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষেই যাবে। যে‌টি কুয়াকাটার পাশের ইউনিয়ন ম‌হিপু‌রে ঘটেছিল।

ওই ঘনিষ্ঠ কর্মী আরও জানান, ইতোমধ্যে বিএনপি নেতার ছেলের সাথে এ বিষয়ে দেন-দরবার সম্পন্ন হয়েছে ব‌লেও তি‌নি নিশ্চিত করেছেন। আওয়ামী লীগ নেতার প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী ২০ লাখ টাকা নিয়ে নির্বাচনী মাঠ ধরে রাখবেন বলেও তার সাথে আলোচনায় চূড়ান্ত করা হয়। সম্প্রতি আওয়ামী লীগ নেতার দেওয়া ছক অনুযায়ী বয়সের ভারে ন্যুব্জ কুয়াকাটা পৌর বিএনপির আহবায়ক পূর্বে কোনো প্রচারণায় না থাকলেও এখন নির্বাচন করার জন্য তিনি শতভাগ তৈরি বলে তার পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন।

এ বিষ‌য়ে কুয়াকাটা পৌর বিএনপি’র যুগ্ম আহবায়ক আবু সাঈদ মিয়া সংবাদকর্মী‌দের জানান, কুয়াকাটা পৌরসভা ঘোষণার পর ‌বিএন‌পির গঠিত আহ্বায়ক কমিটি গত ১০ বছর ধরে কোনো প্রকার সাংগঠনিক কার্যক্রমে নেই। এমনকি কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচিসহ কোনো আন্দোলন সংগ্রামের নেতৃত্বে নেই আহ্বায়ক আব্দুল আজিজ মুসুল্লী। বয়সের ভাঁড়ে এত ন্যুব্জ যে তার চলাচ‌লেও সমস্যা হয়।

এদিকে, আওয়ামী লীগ নেতার পক্ষ থেকে বিএনপি’র প্রার্থীর নির্বাচনী ব্যয় হিসেবে ২০ লাখ টাকা দেওয়ার গুঞ্জন ইতোমধ্যে স্থানীয় এবং উপজেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দের কানেও পৌঁছেছে। এমন গুঞ্জনের খবরে উপজেলা বিএনপি নেতৃবৃন্দও কৌতূহলী হয়ে উঠেন।

এ প্রসঙ্গে কলাপাড়া উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গাজী মো. ফারুক হো‌সেন জানান, এমন একটি গুঞ্জনের খোঁজখবর আমরা নিচ্ছি। তবে কুয়াকাটা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি বর্তমান মেয়র আ. বারেক মোল্লা বিএনপি নেতাদের পেছনে নানা প্রলোভনে ঘুরলেও তাতে সফল হননি ব‌লেও তি‌নি জানান।

কুয়াকাটা পৌর বিএনপির আহবায়ক আব্দুল আজিজ মুসুল্লী নির্বাচনী ব্যয় হিসেবে টাকা গ্রহণের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, আমি কখনো নীতি বিবর্জিত কাজ করিনি এবং এখনও করবো না।

আর কুয়াকাটা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আ. বারেক মোল্লা জানান, এসব গুজব। গুজবে কান দেয়া ঠিক না।
সূত্র- যমুনাটিভি

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত