প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] গ্লোব বায়োটেক ভ্যাকসিনের সাফল্য উড়িয়ে দেয়া যাবে না: ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল

ভূঁইয়া আশিক: [২] বিএসএমএমইউ’র লিভার বিভাগের চেয়ারম্যান আরও বলেন, এই সাফল্যে আবেগতাড়িত হওয়ারও কিছু নেই। দেশী প্রতিষ্ঠানের ভ্যাকসিন তৈরির সাহসকে সাধুবাদ জানানো উচিত। বিজ্ঞান সবসময় সফল হবে না। গ্লোব বায়োটেকের ভ্যাকসিন হয়তো হবে, হয়তো হবে না।

[৩] বিশ^ব্যাপী এখন ১৫০টির বেশি ভ্যাকসিনের উপর গবেষণা চলছে, এর মধ্যে গ্লোব বায়োটেকের ভ্যাকসিনও আছে। এটি আমাদের সক্ষমতারই প্রমাণ। ভ্যাকসিন আবিষ্কারের প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ আছে, এটা অনেক বড় বিষয় বলে মনে হয় আমার।

[৪] এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপে ডা. মামুন আল মাহতাব বলেন, গ্লোব বায়োটেকের তৈরি করোনার ভ্যাকসিন প্রি-ক্লিনিক্যাল পর্যায়ে প্রাণীদেহে অ্যান্টিবডি তৈরি করতে সফল হয়েছে বলে দাবি করেছে সংস্থাটি। অক্টোবরেই মানবদেহে করোনা ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু করার জন্য সরকারের অনুমোদন চাইবে গ্লোব বায়োটেক। আন্তর্জাতিক ওয়েবসাইটে তাদের আবিষ্কার সম্পর্কে মানুষকে জানিয়েছে। এটা জার্নাল পাবলিকেশন নয়। ভ্যাকসিন বাজারে আনার দীর্ঘ প্রক্রিয়া এখনো বাকি রয়েছে।

[৫] ভ্যাকসিন ট্রায়ালে এনিমেলে সাফল্য পেয়েছে, ইদুরের মধ্যে ইনফেকশন ঠেকাতে পেরেছে। তাদের এই সাফল্য ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল আসে কিনা দেখার বিষয়। কারণ এখানে মানুষের নিরাপত্তা ব্যাপার আছে। এই ভ্যাকসিন প্রয়োগের পর কতোদিন মানুষের শরীরে থাকে, সেটিও দেখার বিষয় আছে। সব প্রক্রিয়া শেষে যদি ভ্যাকসিনটি সফল হয়, তাহলে আমরাই সবচেয়ে বেশি গর্বিত হবো। বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি অনুসরণ করে গ্লোব বায়োটেক সাফল্য নিয়ে আসুক, আমরা সেটাই প্রত্যাশা করছি।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত