প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দেবীদ্বার ইউএনও’র উদ্যোগ: সরকারি চাল বিতরণে অনিয়মরোধে ‘ফিঙ্গার প্রিন্ট’

আব্দুল্লাহ মামুন:[২] চাল বিতরণে অনিয়ম রুখতে কুমিল্লার দেবীদ্বারের উপজেলার ইউএনও রাকিবের উদ্ভবনী প্রচেষ্টার প্রতিফলন ‘ওএমএস দেবীদ্বার’। এই এলাকার উপকারভোগীর আঙ্গুলের ছাপ মিললেই কেবল কেবল সরকারি চাল পাওয়া যায়। [৩] দেবীদ্বার উপজেলার গুনাইঘর দক্ষিণ ইউনিয়নের উজানীজোড়া গ্রামে মো. সবুজ, সুফিয়া খাতুন ও রাশেদা বেগম ২০১৫ সাল থেকে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচিতে অর্ন্তভুক্ত। তারা বছরে দুইবার করে চাল নিতে পেরেছেন। করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরুর পর যে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান হয়, তাতে দেখা যায়, তাদের নামে ইতোমধ্যে প্রতি কার্ডে ১৮ থেকে ২২ বার পর্যন্ত চাল নেওয়া হয়েছে।

[৪] এই কর্মসূচির আওতায় দেশের ৫০ লাখ পরিবারকে বছরে পাঁচ মাস ১০ টাকা দরে চাল দেয় সরকার। চাল বিতরণে যেসব অনিয়ম হয়, তা রুখতে দেবীদ্বার উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা রাকিব হাসান বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছেন। [৫] তিনি বলেন, অনেকের নামে কার্ড করা হয়েছে, তারা জানেন না। অথচ তাদের নামে প্রায় প্রতি বছর অন্যায়ভাবে চাল তোলা হচ্ছে। ধারাবাহিক এই অভিযোগগুলোর ভিত্তিতে ভাবলাম প্রযুক্তিকে ব্যবহারের মাধ্যমে উদ্ভবনী বা নতুন কোনো ব্যবস্থা দাড় করাবো।

[৬] নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাকিব হাসনের উদ্ভবনী প্রচেষ্টার প্রতিফলন ‘ওএমএস দেবীদ্বার’ ওয়েবসাইট িি.ড়সংফবনরফৎি.মড়া.নফ। এ ওয়েবসাইটে প্রত্যেক উপকারভোগীর তথ্যের বিপরীতে যুক্ত করা হয়েছে তার অঙ্গুলের ছাপ। উপকারভোগী তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র, মোবাইল নম্বর, ডিজিটাল আইডি নম্বর দিয়ে ব্যবস্থাটি (সিস্টেম) প্রবেশ করা মাত্রই তার ছবিসহ যাবতীয় তথ্য প্রদর্শিত হয়।

সর্বাধিক পঠিত