প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ফের হাসপাতালে অমিত শাহ, বিজেপি শিবিরে দুশ্চিন্তা

ডেস্ক রিপোর্ট : করোনা থেকে মুক্তির দুই সপ্তাহ পর আবারও শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন বিজেপি নেতা ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এ নিয়ে দুশ্চিন্তা দেখা দিয়েছে ক্ষমতাসীন বিজেপি শিবিরে।

অমিত শাহর আরোগ্য কামনা করে একাধিক বিজেপি নেতা-নেত্রীরা মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে বিভিন্ন বার্তা দিয়েছেন।

মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহান টুইটার লিখেছেন, ‘‘কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের রুগ্ন স্বাস্থ্যের কথা জানতে পারলাম। ঈশ্বরের কাছে তাঁর সুস্বাস্থ্য কামনা করি।’’

অমিতের দ্রুত আরোগ্য করে টুইট করেছেন রাজস্থানের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজে সিন্ধিয়াও। এ দিন বসুন্ধরার টুইট, ‘‘ঈশ্বরের কাছে তাঁর (অমিত শাহ) দ্রুত আরোগ্য কামনা করি।’’

করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার দুই সপ্তাহ পর আবারও করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

আনন্দবাজারের খবরে বলা হয়, শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যার জন্য শনিবার রাতে তাকে দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইন্সটিটিউট অব মেডিকেল সায়েন্স (এমস)-এ ভর্তি করানো হয়েছে। যদিও এমসের তরফে জানানো হয়েছে, কোভিড পরবর্তী শারীরিক পরীক্ষার জন্য তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে।

সপ্তাহ দু’য়েক আগে এমস থেকেই ছাড়া পেয়েছিলেন অমিত। কোভিড পরবর্তী চিকিৎসার জন্য সেখানে ভর্তি ছিলেন তিনি।

আনন্দবাজারের খবরে বলা হয়, শনিবার রাত ১১টার দিকে তার শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা দেখা দেয়। এর পর রাতেই অমিতকে এমসে নিয়ে যাওয়া হয়।

তবে এ দিন সকালে এমসের তরফে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘‘কোভিড চিকিৎসার পর গত ৩০ অগস্ট কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে নয়াদিল্লির এমস থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়। সে সময়কার পরামর্শ অনুযায়ী, সংসদের অধিবেশনের আগে পুরোপুরি মেডিক্যাল চেকআপের করাতে তাঁকে এক-দু’দিনের জন্য এখানে ভর্তি করানো হয়েছে।’’ এমস-এর ডিরেক্টর রণদীপ গুলেরিয়ার নেতৃত্বে একটি চিকিৎসক দলের পর্যবেক্ষণে রয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

প্রসঙ্গত, গত ২ আগস্ট করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার খবর জানিয়ে টুইট করেছিলেন অমিত শাহ। এর পর গুরুগ্রামের মেদান্ত হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছিল তাকে।

সেখানে চিকিৎসার পর ১৪ আগস্ট টুইটারে অমিত জানান, তার কোভিড রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। তবে সে সময় হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেও নিজের বাসভবনে আইসোলেশনে ছিলেন অমিত। যদি এর চার দিন পরেই ফের হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় তাকে। ক্লান্তি ও শরীরে ব্যথার সমস্যার কথা জানিয়েছিলেন অমিত। ১৮ আগস্ট কোভিড পরবর্তী চিকিৎসার জন্য তাঁকে এমসে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

৫৫ বছরের অমিতের ডায়াবিটিস থাকায় কোনও ঝুঁকি নিতে চাননি চিকিৎসকেরা। এর ১৩ দিন পর হাসপাতালের চিকিৎসকেরা জানিয়েছিলেন, পুরোপুরি সুস্থ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। গত ৩০ আগস্ট ওই হাসপাতাল থেকে ছাড়া পান তিনি।যুগান্তর

 

সর্বাধিক পঠিত