প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অনিশ্চয়তার মধ্যেও প্রস্তুতি নিচ্ছেন ফুটবলাররা

ডেস্ক রিপোর্ট : ফুটবলারদের কোভিড অবস্থান যাচাই করতে সোমবার (১০ আগস্ট) সকালে দুটি আলাদা জায়গায় টেস্টের ব্যবস্থা করেছে বাফুফে। সেখানে নাটকীয় পরিস্থিতি তৈরির সম্ভাবনাও নেহায়েত কম নয়! তবে এর মাঝেও থেমে নেই অনুশীলন। যাদের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে তারা বিশ্বকাপ বাছাই ম্যাচের জন্য প্রস্তুত করছেন নিজেদের।

বিশ্লেষকরা বলছেন, ফুটবলারদের শারীরিক সক্ষমতা বেশি, তাই তারা দ্রুত ফিট হয়ে উঠবে। কিন্তু এমন পরিস্থিতির জন্য আরও আগেই বাফুফের বিকল্প উপায় ভেবে রাখা উচিৎ ছিল বলে মত তাদের।

করোনার ত্রুটিপূর্ণ টেস্টিং সিস্টেম তৈরি করেছে অনিশ্চয়তা। জাতীয় দলের ক্যাম্পে ডাক পাওয়া ফুটবলারদের ফেলেছে ঘোর সংশয়ে। আপাতত রিপোর্ট যাদের নেগেটিভ তারা শুরু করে দিয়েছেন নিজেদের প্রস্তুত করার মিশন। বাকিরা রয়েছেন আইসোলেশনে।

অথচ দারুণ এক উদ্যমে শুরু হয়েছিল লাল-সবুজদের অনুশীলন। হেড কোচ জেমি আসতে সময় নেবেন, সে অপেক্ষায় বসে থাকেনি সহকারী প্রশিক্ষক কায়সার। শিষ্যদের নিয়ে নেমে পড়েছিলেন লড়াইয়ে। কিন্তু পরিস্থিতি তাকেও থমকে দিয়েছে। তবে এই অনিশ্চয়তা নিয়ে শঙ্কিত নন বিশ্লেষকরা।

ফুটবল কোচ ও বিশ্লেষক সাইফুল বারী টিটু বলেন, এখান থেকে রিবাউন্ড করা করতে হবে। আশা করছি প্লেয়ারদের শারীরিক সক্ষমতা অন্যান্য সাধারণ মানুষের চেয়ে অনেক ভালো। তাই তারা দ্রুতই সুস্থ হয়ে উঠবে। যথেষ্ট সময় আমাদের হাতে আছে। তাই খেলাগুলোর আগে এই আশাতেই থাকতে হবে।

শুরুতে বাফুফের পরিকল্পনা ছিল বিশ্বকাপ বাছাই ক্যাম্প হবে অর্ধ শতাধিক ফুটবলার নিয়ে। তবে অজ্ঞাত কারণে সেখান থেকে সরে আসেন নীতি নির্ধারকরা। ফেডারেশনের ভুল এই জায়গাতেই হয়েছে বলে মত বিশ্লেষকদের।

সাইফুল বারী বলেন, যেকোনো কিছু পরিকল্পনার সময় সব দিকের সূক্ষ্ম ব্যাপারগুলো মাথায় রাখতে হবে। আর কোনো কিছু ঘটলে সেটা থেকে কীভাবে পরিত্রাণ পাওয়া যাবে এ ধরণের চিন্তাও আমাদের থাকা উচিত।

পরিস্থিতি সামলাতে হবে। পিছিয়ে যাওয়ার সুযোগ নেই। আর তাই বাফুফেও শেষ চেষ্টা করছে। সকালে দুটি আলাদা জায়গায় ফুটবলারদের করোনা টেস্টের ব্যবস্থা করা হয়েছে। দেখা যাক না এবার, সেখানে অপেক্ষা করছে কোনো নাটকীয়তা!সময়

সর্বাধিক পঠিত