প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বরেণ্য সংগীত ব্যক্তিত্ব আলাউদ্দিন আলী মারা গেছেন

ইমরুল শাহেদ: [২] রোববার (৯ আগস্ট) বিকেল পৌঁনে ছয়টায় রাজধানীর মহাখালী আয়েশা মেমোরিয়াল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন আটবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া বরেণ্য সংগীত ব্যক্তিত্ব আলাউদ্দিন আলী (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তিনি একাধারে সুরকার ও গীতিকবি।

[৩] তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে আসে সংগীতঙ্গনে। রেশ ফাউন্ডেশন, এমসিএসবি মিউসিক ও কমপোজার্স সোসাইটি অব বাংলাদেশ ছাড়াও তাৎক্ষণিকভাবে শোক প্রকাশ করেছেন, সংগীত পরিচালক শেখ সাদি খান, ফরিদ আহমেদ, নকিব খান, সওকত আলী ইমন, ফোয়াদ নাসের, বাপ্পা মজুমদার, পার্থ বরুয়া এবং এসআই টুটুল।

[৪] গত শুক্রবার দিবাগত রাত থেকেই কিংবদন্তী এই সুরকারের শারীরিক অবস্থা খারাপ হতে থাকে। শারীরিক অবস্থা খারাপের দিকে গেলে শনিবার ভোর পৌনে পাঁচটায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থা বিবেচনা করে তাকে লাইফ সাপোর্টে দেওয়া হয়। চিকিৎসা চলছিল। কিন্তু সব চেষ্টা ব্যর্থ হয়।

[৫] আলাউদ্দীন আলী ফুসফুসের প্রদাহ ও রক্তে সংক্রমণের সমস্যায় ভুগছিলেন দীর্ঘদিন থেকে। প্রথমে ২০১৫ সালের ৩ জুলাই আলাউদ্দীন আলীকে ব্যাংকক নেওয়া হয়েছিল। সেখানে পরীক্ষার পর জানা যায়, তার ফুসফুসে একটি টিউমার রয়েছে। এরপর তার অন্যান্য শারীরিক সমস্যার পাশাপাশি ক্যানসারের চিকিৎসাও চলছিল। এর আগে বেশ কয়েক দফায় তাকে মহাখালীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। দীর্ঘদিন ধরে তিনি শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। বাংলাদেশ ও ব্যাংককে তার চিকিৎসা হয়েছে। সাভারে সেন্টার ফর রিহ্যাবিলিটেশন অব প্যারালাইজড কেন্দ্রেও চিকিৎসা নিয়েছেন দীর্ঘদিন।

[৬] আলাউদ্দিন আলী প্রায় ৩০০ চলচ্চিত্রের সংগীত পরিচালনা করেছেন। তিনি ১৯৭৪ সালে সন্ধিক্ষণ ছবির মাধ্যমে সংগীত পরিচালক হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেন। আলাউদ্দীন আলী বাংলা গান, বিশেষ করে বাংলা চলচ্চিত্রে অসংখ্য শ্রোতাপ্রিয় গান সৃষ্টি করেছেন। বহু গুণে গুণান্বিত এই মানুষটির জন্ম ১৯৫২ সালের ২৪ ডিসেম্বর, মুন্সীগঞ্জের বিক্রমপুরের টঙ্গীবাড়ী থানার বাঁশবাড়ী গ্রামে।

[৭] দেড় বছর বয়সে পরিবারের সঙ্গে ঢাকার মতিঝিলে এজিবি কলোনিতে চলে আসেন আলাউদ্দীন আলী। তিন ভাই, দুই বোনের সঙ্গে সেই কলোনিতেই বড় হন। সংগীতে প্রথম হাতেখড়ি ছোট চাচা সাদেক আলীর কাছে। পরে ১৯৬৮ সালে যন্ত্রশিল্পী হিসেবে চলচ্চিত্রজগতে পা রাখেন। শুরুটা শহীদ আলতাফ মাহমুদের সহযোগী হিসেবে, পরে প্রখ্যাত সুরকার আনোয়ার পারভেজের সঙ্গে দীর্ঘদিন কাজ করেন। বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তানের বহু স্বনামধন্য শিল্পী তার সুরে গান করেছেন।

[৮] গত বছর প্রধানমন্ত্রী তার চিকিৎসার জন্য ২৫ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছেন।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত