প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কামরুল হাসান মামুন: বাংলাদেশ-ভারত যদি সত্যিকারের বন্ধু হতো, তাহলে দুই দেশই অনেক উপকৃত হতো

কামরুল হাসান মামুন: ভারতের প্রভাবশালী দৈনিক the Hinduগত পরশু একটি সংবাদ প্রকাশ করেছিল যার শিরোনাম ছিলো Sheikh Hasina did not meet Indian envoy despite requests। সেটাকে এখন এডিট করে নতুন শিরোনাম হলো ‘Sheikh Hasina failed to meet Indian envoy despite requests: Dhaka daily।  তারপর তৃতীয়দফায় তারা আবার এডিট করে প্রথম শিরোনামে ফিরে যায়। দুটো রিপোর্টের মিনিং সম্পূর্ণ উল্টা।

দ্বিতীয় শিরোনামটি যদি সত্যি হয় তাহলে স্বাধীন স্বার্বভৌম দেশ বলে আমাদের আর কোনো সম্মান রইলো না। আর প্রথমটা যদি সত্যি হয় সেটাও বেশ ভাবনার কারণ বলা হয়, ভারত আমাদের সবচেয়ে কাছের পরীক্ষিত বন্ধু। সবচেয়ে কাছের পরীক্ষিত বন্ধুর সঙ্গে এমন আচরণও কাম্য নয়। মনে রাখতে হবে যে আমাদের প্রায় সম্পূর্ণ বর্ডার জুড়ে ভারত। যেটাই সত্যি হউক সমস্যাতো কোথাও একটু আছে যা অনাকাঙ্খিত। তাছাড়া এই ধরনের শিরোনাম করে সম্পর্ককে আরও কঠিন করে দেওয়া হয়। দুই দেশের সম্পর্ক কখনোই taken for granted হিসাবে নেওয়া যায় না। সর্বদা nurture করতে হয়।

আবার একই সঙ্গে হিসেবে কষতে হয়। শেষ বিচারে সবকিছুই হতে হয় win win সিদ্ধান্তের মাধ্যমে। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য এই পর্যন্ত ভারতের সঙ্গে আমাদের যতোকিছু ঘটেছে তার বেশিরভাগই win lose এর মাধ্যমে হয়েছে। তাদের সঙ্গে আমরা কখনোই diplomatically পারিনি আর তারাও ছোট প্রতিবেশী হিসাবে কোন প্রকার ছাড় দেয়নি। ভারত এইটাও বুঝে না তার প্রতিবেশীগুলোর মধ্যে বাংলাদেশই কেবল অকৃত্তিম বন্ধু। হ্যা, এই দেশে অনেক ভারত বিরোধিতা আছে আবার ভারতকে বন্ধু ভাবার মানুষও আছে যেটা ভারতের অন্য প্রতিবেশীদের মধ্যে পাওয়া যাবে না। ভারত-বাংলাদেশ যদি সত্যিকারের বন্ধু হতো তাহলে দুই দেশই অনেক উপকৃত হতো। দুঃখজনক হলেও সত্যি ভারত অনেক কিছুই করেছে যা বাংলাদেশের দু:খের কারণ হয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম হলো ফারাক্কা বাধ, আন্ত:নদী সংযোগ প্রকল্প, তিস্তা বাঁধ, রামপাল প্রজেক্ট ইত্যাদি। ফেসবুক থেকে

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত