প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সরকারি সিদ্ধান্ত বাতিল না হলে আমরণ অনশনসহ কঠোর কর্মসূচির ঘোষণা

শরীফা খাতুন, খুলনা প্রতিনিধি: [২] মঙ্গলবার দুপুরে প্লাটিনাম জুবিলি জুট মিলের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালনকালে পাটকল শ্রমিক নেতারা এ ঘোষণা দেন।

[৩] সরকারি-বেসরকারি অংশীদারীত্বের (পিপিপি) ভিত্তিতে রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল চালুর সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে খুলনা অঞ্চলের ৯টি পাটকলের শ্রমিকরা নিজ নিজ মিলের সামনে মঙ্গলবার দুপুর ২টা থেকে বুধবার দুপুর ২টা পর্যন্ত অবস্থান কর্মসূচি শুরু করেছে। এর আগে একই দাবিতে সোমবার সকাল ৯ টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত ২ ঘণ্টা অবস্থান কর্মসূচি পালন করে শ্রমিক ও তাদের পরিবারের সদস্যা।

[৪] এদিকে, মঙ্গলবার দুপুরে প্লাটিনাম জুবিলি জুট মিলের সামনে অবস্থান কর্মসূচি চলাকালে পাটকল শ্রমিক নেতৃবৃন্দ বলেন, আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সরকার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন না করলে আমরণ অনশনসহ কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। কোনো অবস্থাতেই মিল বন্ধ করতে দেয়া হবে না। তারা বিজেএমসিকে পুনর্গঠন করে মিল চালু রাখার জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানান।

[৫] প্লাটিনাম জুট মিলের সিবিএ’র সভাপতি সাহানা শারমিন জানান, দাবি আদায় না হওয়ায় কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে। রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল রক্ষা সিবিএ-ননসিবিএ সংগ্রাম পরিষদের আহবায়ক সরদার আব্দুল হামিদ বলেন, হঠাৎ করেই মিল বন্ধ হলে হাজার হাজার শ্রমিকরা বেকার হয়ে পড়বে। তখন পরিবার-পরিজন নিয়ে সকলকে পথে বসতে হবে।

[৬] তিনি বলেন, মিল বন্ধের এই ভ্রান্ত সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করতে হবে। অন্যথায় কঠোর আন্দোলন কর্মসূচি দেওয়া হবে।

[৭] খুলনার রাষ্ট্রায়ত্ত ক্রিসেন্ট, স্টার, প্লাটিনাম, ইস্টার্ন, দৌলতপুর, খালিশপুর, জেজেআই, আলিম ও কার্পেটিং জুট মিলে ৮ হাজার ১০০ স্থায়ী শ্রমিক ও প্রায় ১৫ হাজার অস্থায়ী শ্রমিক কর্মরত রয়েছেন।

[৮] অবস্থান ধর্মঘট কর্মসূচি চলাকালে শ্রমিকরা বলেন, বর্তমান সরকার প্রধান একজন মানবিক ব্যক্তিত্ব। তিনি রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বিশ্ব দরবারে সুনাম কুড়িয়েছেন। তার মত একজন মমতাময়ী প্রধানমন্ত্রীর আমলে পাটকল বন্ধ হতে পারে না। শ্রমিকদের বিশ্বাস প্রধানমন্ত্রীকে ভুল বুঝিয়ে মিল বন্ধের জন্য তার সম্মতি নেয়া হয়েছে। এজন্য কিছু আমলা এবং এক শ্রেণির বিত্তবান রাজনীতিবিদ দায়ী।

[৯] এদিকে, চলমান সমস্যা নিরসনে দেশের ২৫ টি পাটকলের সিবিএ নেতারা গত সোমবার বিকালে ঢাকায় শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রানলয়ের প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ানের সাথে বৈঠক করেছে। শ্রম দপ্তরে প্রায় সাড়ে তিন ঘন্টা বৈঠক চললেও তেমন কোন সুরাহা হয়নি।

[১০] উল্লেখ্য, খুলনার পাটকলসহ রাষ্ট্রায়ত্ব সকল পাটকল সরকারি-বেসরকারি অংশীদারীত্বের (পিপিপি) ভিত্তিতে সরকার চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন। সোমবার সার্কিট হাউজের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত প্রেস কনফারেন্সে এ ঘোষণা দেয়া হয়। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত