প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] দুর্যোগ পিছু ছাড়ছে না রাজশাহী অঞ্চলের চাষীদের

মঈন উদ্দীন: [২] প্রাকৃতি দুর্যোগ যেন পিছু ছাড়ছে না কৃষকের। একটার পর একটা দুর্যোগ লেগেই আছে। প্রথমে করোনা তারপরে সুপার সাইক্লোন আম্ফান। পরে দফায় দফায় কালবৈশাখী। এসব ঝড়ে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে কৃষক। আম, লিচু, কলা, পেপেঁ, ধান, পাট, ভুট্টা, শাকসবজি ও গ্রীষ্মকালীন তরিতরকারিসহ বিভিন্ন ফসল নষ্ট হওয়ায় হওয়ায় তছনছ হয়ে যাচ্ছে রাজশাহী অঞ্চলের কৃষকদের স্বপ্ন।

[৩] গত বুধবার রাতের কালবৈশাখীর ঝড়ে জেলার বিভিন্ন বাগানে প্রচুর পরিমাণ আম, লিচু ঝরে গেছে। উপড়ে গেছে, পেঁপে, কলা, ভুট্টা এবং সাজিনার গাছ। ডুবে গেছে মাঠের পাকা বরো ধান। তবে কৃষি বিভাগ বলছে, ঝড়-শিলাবৃষ্টির মাঝেই আম বড় হয়+। ক্ষতি খুব একটা হবে না।

[৪] জানতে চাইলে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক শামসুল হক বলেন, নদীর ধার দিয়ে যেসব বাগান রয়েছে সেখানে কিছু আম ঝরেছে। তবে সেটা ১ শতাংশ হতে পারে। আর আম ঝড়-শিলাবৃষ্টির মাঝেই টিকে থাকে। এছাড়া বরো ধান প্রায় সমস্ত উঠেগেছে। তবে পেঁপে ও কলার কিছুটা ক্ষতি হলেও খুব একটা বেশী ক্ষতি হয়নি। আপাতত চাষিরা লোকসানের আশঙ্কা করলেও ক্ষতি খুব একটা হবে না।

[৫] গত ২২ মে ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের প্রভাবে রাজশাহীতেও ঝড়-বৃষ্টি হয়। কৃষি বিভাগের হিসাব অনুযায়ী সেদিন গাছের ১৫ শতাংশ আম ঝরে পড়েছে। এতে চাষিদের প্রায় ১২০ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। সম্পাদনা : জেরিন আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত