প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কুলাউড়ার উপজেলা চেয়ারম্যান ও মেয়র তাদের বাসাগুলোর ভাড়া এক মাসের জন্য মওকুফ করে দিলেন

স্বপন দেব, মৌলভীবাজার: [২] বিশ্বে দিনদিন করোনা ভাইরাসের ভয়াবহ সংক্রমণে অর্থনীতির মারাত্মক মন্দাভাব চলছে। সেই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের অর্থনীতিতে এখন অনেকটা স্থবিরতা চলছে। শনিবার (৪ এপ্রিল) পর্যন্ত টানা ১৯ দিন ধরে চলা সারাদেশে অর্থনৈতিক মন্দায় সংসার চালানো নিয়ে নিম্ন ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির নাভিশ্বাস ওঠেছে। নিম্ন আয়ের লোকজন সরকারি- বেসরকারি সহায়তার জন্য হাত পাততে পারলেও মধ্য আয়ের লোকজন আত্ম সন্মানের জন্য সেই কাজটি করতে পারছেন না।

[৩] তারা নিজেদের এই অসহায়ত্বে কথাটি কাউকে বলতেও পারছেন না, আবার সংসারের চাকা স্বাভাবিকভাবে টেনে নিয়েও যেতে পারছেন না। এমনি এক অব্যক্ত যন্ত্রনা থেকে বাঁচাতে একান্ত মানবিক কারণে কুলাউড়া উপজেলার দু’জন জনপ্রতিনিধি স্বেচ্ছায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি একেএম সফি আহমদ সলমান এবং কুলাউড়া পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব শফি আলম ইউনুস তাঁদের মালিকানাধীন বাসাগুলোর একমাসের ভাড়া মওকুফ করে দিয়ে অনন্য দৃষ্টান্ত দেখালেন।

[৪] জানা যায়, কুলাউড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম সফি আহমদ সলমান ব্যক্তিগত মালিকানাধীন কুলাউড়া পৌর এলাকার বাদে মনসুরে, ব্রাহ্মণবাজার এবং সিলেটে অবস্থিত তিনটি বাসার চলতি মাসের ভাড়া মওকুফ করেদিয়েছেন।

[৫] একইভাবে মানবিক দৃষ্টিকোন থেকে কুলাউড়া পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব শফি আলম ইউনুছ পৌর এলাকায় নিজের মালিকানাধীন ৮টি বাসার ভাড়া, বিদ্যুৎবিল, গ্যাসবিল ও পানিবিল মওকুফ করে দিয়েছেন। পৌর মেয়র শফি আলম ইউনুছ গত শুক্রবার (৩ এপ্রিল) জুমআর নামাজ শেষে এ বিষয়টি ঘোষনা করেন।

[৬] কুলাউড়া উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম সফি আহমদ সলমান জানান, করোনা পরিস্থিতিতে গৃহবন্দী অসহায় পরিবারের জন্য উপজেলা পরিষদ এবং আমার ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে সহায়তা করা হয়েছে। কিন্তু যারা ভাড়াটিয়া আছেন তাদের অনেকই কারো কাছে নিজেদের কষ্টের কথাটি বলতে পারেন না। তাই মানবিক কারণে আমি একমাসের ভাড়া মওকুফ করে দিয়েছি।

[৭] কুলাউড়া পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব শফি আলম ইউনুছ বলেন, করোনাভাইরাসের মতো ভয়াবহ দূর্যোগে প্রতিটি মানুষকে নিজেদের অবস্থান থেকে মানুষের পাশে দাঁড়ানো উচিত। শুধু নিম্নবিত্ত শ্রেণি নয়, মধ্যবিত্ত শ্রেণির যারা কর্মহীন হয়ে পরেছেন অথচ কারো কাছে তার অসহায়ত্ব প্রকাশ করতে পারছেনা, তাদের দিকটাও বিশেষ বিবেচনায় আনতে হবে।

[৮] আমার ব্যক্তিগত মালিকানাধীন পৌর এলাকার আটটি বাসার ভাড়া, গ্যাসবিল ও বিদ্যুৎবিলসহ যাবতীয় মওকুফ করার ঘোষনা দিয়েছি। এ দুজন জনপ্রতিনিধি উপজেলা ও পৌর এলাকার অন্যান্য বাসার মালিকদেরও তাঁদের নিজ মালিকানাধীন বাসা সমুহের ভাড়া একমাস মওকুফ করে দেয়ার বিনীত অনুরোধ জানান। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

সর্বাধিক পঠিত