প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] গভীর রাতে ক্ষুধার্ত শিশুর ফোন, খাবার নিয়ে হাজির আক্কেলপুরের ইউএনও

সফিউল আলম : [২] বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ৯টা। আক্কেলপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সরকারি নাম্বারে মুঠো ফোনে রিং আসে, স্যার আপনি মাইকে বলেছিলেন কোনো সমস্যা হলেই আপনাকে ফোন দিতে। তাই আপনাকে ফোন করছি। আজ আমাদের বাড়িতে কোনো খাবার নেই।

[৩] তাৎক্ষণিক উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওই শিশুটির বাড়ির ঠিকানা জেনে নিয়ে শিশুটিকে বলেন, তুমি তোমার বাসার দরজায় দাঁড়াও আমি দ্রুত আসছি।

[৪] কয়েক মিনিটের মধ্যে চলে গেলেন ওই শিশুটির দেয়া ঠিকানায়। সেখানে গিয়ে দেখেন শিশুটি তার মায়ের সঙ্গে বাড়ির দরজায় দাঁড়িয়ে। নির্বাহী অফিসার খাবার সামগ্রী তুলে দিলেন ওই শিশুটির পরিবারের হাতে। এ সময় শিশুটি একবার খাবার সামগ্রীর দিকে ও আরেকবার নির্বাহী অফিসারের দিকে তাকাচ্ছিলে।

[৫] নির্বাহী অফিসার জানান, ওইদিন তিনি সকল কার্যক্রম পরিচালনা শেষে রাতে অফিসে গিয়ে বসেছিলেন, এমন সময় উপজেলার কাশিড়া বাজারের জনৈক এক ব্যক্তি নিজেকে একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী পরিচয় দিয়ে জানান, কয়েকদিন ধরে আমার দোকান বন্ধ। রোজগার না থাকায় ঘরে খাবার নেই।

[৬] ওই ব্যক্তিকে খাবার পৌছে দিচ্ছি বলে আশ্বস্ত করে তার সন্ধানে কাশিড়া বাজারে রওয়ানা দেন। তার সঙ্গে উপস্থিতির স্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হতে পথিমধ্যে থেকেও মুঠোফোনে যোগাযোগ হয়।

[৭] ওই ব্যক্তি বলেন, আমি কাশিড়া বাজারে দাঁড়িয়ে আছি। অল্প সময়ের মধ্যে তিনি কাশিড়া বাজারে পৌঁছে ওই ব্যক্তির কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। তার মোবাইল ফোনও বন্ধ ছিলো। সেখানে আধাঘণ্টা সময় অপেক্ষা করে পরিশ্রান্ত হয়ে বাসায় পৌঁছেন। ফ্রেশ হয়ে বিছানায় যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন, এমন সময় ফোন করে শিশুটি।

[৮] উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. জাকিউল ইসলাম বলেন, এ দুর্যোগে সবারই এগিয়ে আসা উচিৎ। সম্পাদনা : মুরাদ হাসান

সর্বাধিক পঠিত