প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পাটগ্রামে ত্রাণ নিয়ে সংঘর্ষ, গ্রাম পুলিশসহ আহত ৬

লালমনিরহাট প্রতিনিধি : [২] জেলার পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদে ত্রাণ বিতরণের তালিকা তৈরী নিয়ে চেয়ারম্যান ও ইউপি-সদস্য গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় দুই জন গ্রাম পুলিশসহ উভয় পক্ষে ৬ জন আহত হয়েছে।

[৩] রোববার রাতে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবু সাঈদ নেওয়াজ নিশাত ও ১ নং ওয়ার্ডের সদস্য হাফিজুল ইসলামের গ্রুপের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

[৪] স্থানীয়রা জানান, করোনা ভাইরাসের কারণে নিন্ম আয়ের মানুষজনের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম চলছে। রোববার বিকালে বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে শ্রমিকদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমের উদ্ধোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য মোতাহার হোসেন। ওই ত্রাণের সুবিধাভোগীদের তালিকা তৈরি নিয়ে রাতে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবু সাঈদ নেওয়াজ নিশাত গ্রুপ ও ১ নং ওয়ার্ডের সদস্য হাফিজুল ইসলামের গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে ওই ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশ আঃ রাজ্জাক ও আইয়ুব আলীসহ উভয় পক্ষে অন্তত ৬ জন আহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

[৫] ইউ-পি সদস্য হাফিজুল ইসলাম বলেন, চেয়ারম্যান একাই তালিকা তৈরী করে ত্রাণ বিতরণ করছেন। আমি এ বিষয়ে খোঁজ খবর নিতে গেলে চেয়ারম্যানের লোকজন হামলা চালায়। এতে আমার ছেলে রিফাতসহ কয়েকজন আহত হয়েছে।

[৬] বুড়িমারী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবু সাঈদ নেওয়াজ নিশাত বলেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য মোতাহার হোসেন অন্য ভাবে তালিকা তৈরী করে তিনি নিজেই ত্রাণ বিতরণ করেছেন। বিতরণস্থল আমার ইউনিয়ন হওয়ায় আমি সেখানে উপস্থিত ছিলাম। রাতে হঠাৎ করে ইউ-পি সদস্য হাফিজুল ইসলামের লোকজন এসে হামলা চালায়। এতে গ্রাম পুলিশ আঃ রাজ্জাক ও আইয়ুব আলীসহ কয়েকজন আহত হয়েছে।

[৭] পাটগ্রাম থানার ওসি সুমন কুমার মোহন্ত বলেন, বিষয়টি লোকমুখে জানতে পেয়েছি। আরো শুনলাম রাতেই নাকি তাদের মাঝে মিমাংশাও হয়েছে। তবে অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

[৮] পাটগ্রামের ইউএনও মশিউর রহমান বলেন, রাতে বুড়িমারী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ফোনে বিষয়টি আমাকে অভিযোগ করেছেন। চেয়ারম্যানের দাবী, দুই জন গ্রাম পুলিশ আহত হয়েছে। আমি লিখিত অভিযোগ করতে বলেছি। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত