প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

করোনা মোকাবিলায় ঐতিহাসিক ২ ট্রিলিয়ন ডলারের বিলে ট্রাম্পের স্বাক্ষর

ডেস্ক রিপোর্ট : (১) গতকাল শুক্রবার (২৭ মার্চ) বিকালে ঐতিহাসিক ২ ট্রিলিয়ন ডলারের করোনাভাইরাস বিলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প স্বাক্ষর করেন।

 

(২)প্রসঙ্গত, গত ২৫ মার্চ, বুধবার বিকেলে সিনেট নেতৃবর্গ ঐতিহাসিক করোনাভাইরাস প্যাকেজ নিয়ে হোয়াইট হাউজের সাথে সমঝোতায় পৌঁছায়। আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে করোনাভাইরাস প্যাকেজের মত এত বিপুল অঙ্কের প্রণোদনা আর কখনো দেয়া হয়নি বলে ট্রাম্প প্রশাসন ও সিনেটরগণ দাবি করেছেন।

(৩)স্মর্তব্য, প্রতি সেকেন্টে ২ লাখ ৯৯ হাজার ৭৯২ কিলোমিটার বেগে অর্থাৎ আলোর গতিতেই সর্বগ্রাসী করোনাভাইরাস সমগ্র বিশ্বে মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ছে। ইতোমধ্যে সারাবিশ্বে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৫ লাখ এবং মৃতের সংখ্যাও ২১ হাজার অতিক্রম করেছে। বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ার প্রারম্ভিক পর্বে চলতি মাসের গোড়ার দিকে যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেস ৮.৩ বিলিয়ন ডলারের ইমার্জেন্সী স্পেন্ডিং মেজার (জরুরি ব্যয় পদক্ষেপ) অনুমোদন করেছিল তৎকালীন পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য। কিন্তু সময়ের অগ্রযাত্রায় করোনাভাইরাস বর্তমানে সর্বগ্রাসী মহামারির আকার ধারণ করেছে এবং আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রসহ সারাবিশ্বের অর্থনীতি-শ্রমবাজার- শিল্পকারখানা-ব্যবসা বাণিজ্যে স্মরণকালের ভয়াবহ দুর্যোগ নেমে এসেছে। করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিহতের লক্ষে ব্যাপক শাটডাউন এবং শ্রমজীবী মানুষকে ঘরে থাকার ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ এবং বার রেস্টুরেন্ট, বিমান চলাচল ও অন্যান্য যানবাহনের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের ফলে চরম বেকারত্ব মাথা চাড়া দিয়ে উঠেছে। আয়-উপার্জন শূন্যের কোটায় নেমে আসায় হত-দরিদ্র আমেরিকানদের দুর্ভোগ চরমে উঠেছে এবং শিল্পকারখানা ও সকল প্রতিষ্ঠানে আর্থিক ধস নামায় আমেরিকার অর্থনীতির চাকা অচল হয়ে পড়েছে।

 

(৪) এমনতর বাস্তবতায় রিপালিকান এবং ডেমক্র্যাটগণ সম্মিলিতভাবে নতুন করে ২ ট্রিলিয়ন ডলারের ইকোনমিক স্টিমুলাস প্যাকেজ (অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার জন্য বিশেষ প্রণোদনা) পাশ করেছে। আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে এত বিপুল অঙ্কের প্রণোদনা আর কখনো দেয়া হয়নি বলে ট্রাম্প প্রশাসন দাবি করেছে। সিনেট সংখ্যাগরিষ্ঠ নেতা কেন্টাকীর রিপাবলিকান দলীয় সিনেটর একে ওয়ারটাইম লেভেল ইনভেস্টমেন্ট ফর আওয়ার ন্যাশন (আমার জাতির জন্য যুদ্ধকালীন স্তরের বিনিয়োগ হিসেবে অভিহিত করেছেন। তিনি আরও বলেন, আমেরিকার ইতিহাসে এতবড় বেকারত্ব জাতি কখনো দেখেনি। তিনি বলেন এয়ারলাইনগুলোও অতীতে এত ভয়াবহ পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়নি। ব্যবসা-বাণিজ্য ও হোটেলের একই অবস্থা। তাই ছোট ছোট ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানকে আর্থিক ঋণ সহযোগিতা প্রদান করা হবে এবং এয়ার লাইন ও হোটেল জাতীয় ইন্ডাস্ট্রীগুলোর জন্য লোন মঞ্জুর করা হবে।

(৫) রিপাবলিকান এবং ডেমক্র্যাটিক সিনেটরগণ বলেন, করোনাভাইরাসের নগ্ন থাবায় ব্যবসা-বাণিজ্য- বিমান ও পর্যটন সংস্থাসহ জাতীয় প্রতিষ্ঠানাদির যে বর্ণনাতীত ক্ষতি সাধিত হয়েছে তা থেকে পরিত্রাণ এবং আমেরিকান শ্রমিকদের হাতে চেক তুলে দেয়ার জন্য এ বিল পাশ করার প্রয়োজনীয়তা অনস্বীকার্য।

(৬) ট্রেজারী সেক্রেটারী মনুচিন ক্যাপিটল হিলে এক সংবাদ সম্মেলনে মনুচিন বলেছিলেন, বাইপার্টিশন সমর্থনের মাধ্যমে পরবর্তী দু সপ্তাহের মধ্যে আমেরিকানদের নিকট চেক পাঠানোর আমরা আয়োজন করছি। তিনি আরও বলেন ট্যাক্স পেমেন্ট ৯০ দিনের জন্য স্থগিত করা হয়েছে। মনুচিন বর্তমানের পরিস্থিতিকে ২০০৮ সালের আর্থিক মহামন্দার চেয়েও ভয়াবহ উল্লেখ করে বলেন, হাজার হাজার বিমান চলাচল বাতিল করা হয়েছে, রেস্টুরেন্ট ও প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। গৃহে অবস্থানকারী শ্রমিক-কর্মচারিসহ আমেরিকানদের হাতে সহসা এ চেক সরাসরি তুলে দেয়া হবে। এদিকে বরাদ্দকৃত অর্থের সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করার জন্য ডেমক্র্যাটদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ট্রাম্প প্রশাসন সব কিছু দেখভালেরর জন্য ওভারসাইট বোর্ড এবং ইন্সপেক্টর জেনারেল পদ সৃষ্টিতে সম্মত হয়েছে।

[৭]বন্টনের রূপ রেখা: অনুমোদিত প্যাকেজ থেকে ২৫০ বিলিয়ন ডলার সরাসরি প্রদান করা হবে আমেরিকান জনগণ ও পরিবারকে। ৩৫০ বিলিয়ন ডলার প্রদান করা হবে স্মল বিজিনেস লোন হিসেবে। ২৫০ বিলিয়ন ডলার প্রদান করা হবে বেকারত্ব ইন্স্যুরেন্স বেনিফিট হিসেবে। আর বিপর্যস্ত কোম্পানীগুলোকে লোন বাবত প্রদান করা হবে ৫০০ বিলিয়ন ডলার।

[৮]আমরা কত পেতে যাচ্ছি: ২০১৮ সালের ট্যাক্স রিটার্নের ভিত্তিতে এককভাবে বছরে সমন্বিত সর্বোচ্চ গ্রস ৭৫ হাজার ডলার বা তার চেয়ে কম উপার্জনকারী ব্যক্তি পাবেন সরাসরি ১ হাজার ২০০ ডলারের চেক। বিবাহিত দম্পতির বার্ষিক সমন্বিত সর্বোচ্চ গ্রস ১ লাখ ৫০ হাজার ডলার বা তার চেয়ে কম হলে তারা পাবেন সরাসরি ২ হাজার ৪০০ ডলারের চেক। আবার এককভাবে বছরে ৭৫ হাজার ডলারের বেশি কিন্তু ৯৯ হাজার ডলারের কম উপার্জনকারী ব্যক্তি ১,২০০ ডলার ছাড়াও ৭৫ হাজার পরবর্তী পর প্রতি ১০০ ডলারের জন্য ৫% কম হারে চেক পাবেন। অনুরূপভাবে বার্ষিক দেড় লাখ ডলারের বেশি কিন্তু ১ লাখ ৯৮ হাজারের কম উপার্জনকারী দম্পরিতরা ২ হাজার ৪০০ ডলার ছাড়াও দেড় লাখ ডলার পরবর্তী এবং সর্বোচ্চ ১ লাখ ৯৮ হাজার ডলার পর্যন্ত দেড় লাখ ডলার পরবর্তী প্রতি ১০০ ডলারের জন্য ৫% কম হারে চেক পাবেন। তবে ১ লাখ ৯৮ হাজারের বেশি উপার্জনকারী দম্পতিরা কোন চেক পাবেন না। আবার সন্তান-সন্ততি আছে এমন ধরনের একক ব্যক্তি বা দম্পতিরা প্রতি বাচ্চার জন্য ৫০০ ডলার বেশি হারে চেক পাবেন। প্যাসেঞ্জার এয়ার ক্যারিয়ার্সের (যাত্রীবাহী বিমানবহরের) জন্য ৫০ বিলিয়ন ডলারসহ বিপর্যস্ত কোম্পানীগুলোকে ঋণ হিসেবে ৫০০ বিলিয়ন ডলার প্রদান করা হবে।

[৯]সেলফ এমপ্লয়েড (স্বনিয়োজিত) কর্মচারিসহ বেকার কর্মচারিদের বেকারত্ব বেনিফিট ৪ মাস পর্যন্ত দেয়া হবে। স্মল বিজিনেসকে ( ছোটখাট ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলো) নিজেদের পেরোল রক্ষণাবেক্ষণ এবং ঋণ পরিশোধ অব্যাহত রাখার খাতিরে স্মল বিজিনেসের জন্য সর্বোচ্চ ১০ বিলিয়ন ডলার স্মল বিজিনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের মাধ্যমে প্রদান করা হবে।
তাছাড়া সর্বগ্রাসী করোনাভাইরাসের সাথে নিরবচ্ছিন্ন লড়াই করতে গিয়ে যে সকল হাসপাতাল আর্থিক দোটানায় এবং স্টেট আর্থিক সঙ্কটের মুখোমুখি হয়েছে তাদের জন্য যথাক্রমে ১৩০ বিলিয়ন এবং ১৫০ বিলিয়ন ডলার রাখা হয়েছে।

[১০] অর্থনীতির প্রায় অচল চাকাকে সচল করার জন্য ফেডারেল রিজার্ভকে সর্বোচ্চ ৪ ট্রিলিয়ন ডলার (এডিশনাল লিকুইডিটি) তরল অর্থ সরবরাহের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। করোনাভাইরাসের দ্রুত বিস্তার প্রতিরোধার্থে পারস্পরিক মেলা-মেশা এবং কাছাকাছি অবস্থান ঠেকাতে নিউ ইয়র্ক, ক্যালিফোর্নিয়া, ইলিনয়, কানেকটিকাট ও নিউ জার্সী পুরোপুরি লক ডাউটন করে দিয়েছে। একমাত্র অপরিহার্য কর্মকর্তা- কর্মচারি ছাড়া সকল ধরনের কর্মচারিকে ১০০% গৃহে অবস্থানের নির্দেশ দিয়েছে। ফলশ্রুতিতে কমপক্ষে কমপক্ষে ৮ কোটি আমেরিকান বর্তমানে চরম বিপর্যয়ে পড়েছে। অর্থ মন্ত্রী মনুচিন বলেন, অতিরিক্ত লিকুইডিটি পদক্ষেপের ফলে সেন্ট্রাল ব্যাঙ্কের মাধ্যমে সারা দেশজুড়ে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ও অন্যান্য ক্ষতিগ্রস্তরা আগামী ৯০ থেকে ১২০ দিনের মধ্যে সাহায্য পাবেন।

[১১] নিউ ইয়র্কের শ্রমিকদের জন্য আলবেনীর পদক্ষেপ: কোয়ারেন্টাইন বা নির্জনে থাকার নির্দেশপ্রাপ্ত শ্রমজীবীদের চাকরি এবং মজুরির নিশ্চয়তা দিয়েছে নিউ ইয়র্ক স্টেটের আইন প্রণেতাগণ। আলবেনীর পদক্ষেপের ফলে শ্রমিক কর্মচারিরা কোয়ারেন্টাইন বা আইসোলেশনে থাকতে বাধ্য হলে অব্যাহতভাবে পে চেক পাবেন। যে সকল কোম্পানীতে ১০০ বা তার চেয়ে বেশি সংখ্যক কর্মচারি রয়েছে সে সকল কোম্পানীকে সম্প্রতি গভর্নর ক্যুমো নির্দেশ দিয়েছেন কোভিড-নাইনটীন সংক্রমিত শ্রমিক-কর্মচারিদের কমপক্ষে ২ সপ্তাহের মজুরি দিতে। স্কুল এবং লোক্যাল গভর্নমেন্টের মত পাবলিক নিয়োগকর্তাদের ক্ষেত্রেও নিয়মটি প্রযোজ্য। আইন অনুসারে, যে সকল কোম্পানীতে ১০০ জনের কম শ্রমিক রয়েছে সেগুলো কমপক্ষে ৫ দিন সবেতন ছুটি দিতে এবং বিনা বেতনে আরোগ্য লাভ পর্যন্ত ছুটি দিতে বাধ্য থাকবে। এডভোকেটগণ পদক্ষেপটির প্রশংসা করলেও ফ্রীলেঞ্চার ও ইন্ডিপেন্ডেন্ট কন্ট্রাকটরগণ কোন বেনিফিট পাচ্ছেনা বিধায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। মেইক দ্য রোড নিউ ইয়র্কের কো-এক্সিকিউটিভ ডাইরেক্ট ডেবোরা এক্সট বলেন, ইন্ডিপেন্ডেন্ট কন্ট্রাক্টর, ছোট ব্যবসায়ী ও ইমিগ্রেশন কর্মচারিদের কর্মঘন্টা হ্রাস পেয়েছে। আবার অনেকে জীবন ঝুঁকি নিয়ে খাবার ডেলিভারী, স্বাস্থ্য পরিষেবা দিচ্ছে এবং যানবাহন পরিচালনা করে আমাদের সাহায্য করছে তাদের ব্যাপারেও গভর্নর এবং আইন সভার সদস্যদের আন্তরিক হওয়া উচিত।
ট্রাম্প আরও বলেন, চরম বিপর্যস্ত নিউ ইয়র্ক, ক্যালিফোর্নিয়া এবং ওয়াশিংটনের জন্য ফেডারেল সরকারের পক্ষ বাড়তি রিসোর্চেস বা উপকরণ সরবরাহ করা হবে। তিনি আরও জানান, উল্লেখিত স্টেটগুলোতে অনুমোদিত মিশন পরিচালনাকারী ন্যাশনাল গার্ডদের ব্যয়ের ১০০%ই বহন করবে ফেডারেল সরকার। ন্যাশনাল গার্ড ইউনিটগুলো অতিরিক্ত জনবল এবং সম্পদের যোগান দিবে।

[১২]ভয়াবহ করোনাভাইরাস মোকাবেলায় বিশেষ তৎপর হওয়ায় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ওয়াশিংটনের ডেমক্র্যাটিক গভর্নর জে ইন্সলী; ক্যালিফোর্নিয়ার ডেমক্র্যাটিক গভর্নর গেভিন নিউজম্যান এবং নিউ ইয়র্কের গভর্নর এন্ড্রু ক্যুমোর কর্মকান্ডের ভূয়সী প্রশংসা করেন।
[১৩]ট্রাম্প আরও জানান, ঘোষিত কর্মসূচির আওতায় নিউ ইয়র্ক স্টেট পাবে ৪টি ফেডারেল মেডিক্যাল স্টেশন ও ১ হাজার হসপিটাল বেড। ক্যালিফোর্নিয়া পাবে ৮টি ফেডারেল মেডিক্যাল স্টেশন এবং ২০০০ বেড। আর ওয়াশিংটন পাবে কয়েকটি মেডিক্যাল স্টেশন এবং ১ হাজার বেড। এছাড়াও ন্যাশনাল স্টকপাইল থেকে গ্লোভস, মাস্ক এবং গাউনসহ লাখ লাখ টুকরো ব্যক্তিগত প্রটেক্টিভ যন্ত্রপাতিও বিতরণ করা হবে উপদ্রুত স্টেটগুলোতে। ন্যাশনাল গার্ডের সাথে আর্মীর ইঞ্জিনিয়ার কর্পসও ফ্যাসিলিটি নির্মাণসহ অন্যান্য কাজে সহযোগিতা করবে বলে ট্রাম্প জানিয়েছেন।
সূত্র- সিএনএন ও ঠিকানা

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত