প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] করোনা ভাইরাসের প্রভাব এনজিও’র ঋণের কিস্তি পরিশোধে হিমসিম খাচ্ছে ঋণ গ্রহিতারা

আমতলী প্রতিনিধি: [২] করোনা ভাইরাসে এনজিও’র কিস্তির পরিশোধে হিমসিম খাচ্ছে আমতলী উপজেলার প্রায় লক্ষাধীক ঋণ গ্রহিতা। ঋণ গ্রহিতারা দ্রুত এনজিও’র কিস্তি বন্ধের দাবি জানিয়েছেন। এনজিও’র কিস্তি বন্ধ না হলে তাদের পরিবার পরিজন নিয়ে না খেয়ে থাকতে হবে এমন দাবি ঋণ গ্রহিতাদের। এদিকে এনজিও’র লোকজন ঋণের কিস্তি আদায়ের জন্য চাপ প্রয়োগ করে আসছে এমন অভিযোগ ঋণ গ্রহিতাদের।

[৩] জানা গেছে, আমতলী উপজেলায় প্রায় অর্ধ শতাধিক বে-সরকারী সংস্থা এনজিও রয়েছে। ওই এনজিওগুলো থেকে আমতলী উপজেলার প্রায় লক্ষাধীক মানুষ ঋণ নিয়ে ব্যবসা বানিজ্য, গরু ও হাস মুরগী পালন করে পরিবার পরিজন নিয়ে দিনাতিপাত করছে। করোনা ভাইরাসের প্রার্দুভাব দেখা দেওয়ায় আমতলী উপজেলার ব্যবসায়ী, কৃষক, জেলে ও দিন মজুর মানুষের আয়ের পথ বন্ধ হয়ে গেছে। আয়ের পথ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছে উপজেলার ঋণ গ্রহিতারা। এক দিকে পরিবারের ভরণ পোষণ, অন্য দিকে সপ্তাহিক ও মাসিক ঋণের কিস্তির বোঝা। বর্তমানে আয়ের পথ বন্ধ হওয়ায় পরিবারের ভরণ পোষণই কষ্ট সাধ্য হয়ে দাড়িয়েছে ।

[৪] এনজিও’র ঋণের কিস্তি পরিশোধ করার মত কোন সামর্থ নেই এমন দাবী ঋণ গ্রহিতাদের। এদিকে করোনা ভাইরাসের প্রভাবে বে-সরকারী সংস্থা এনজিওগুলো ঋণের কিস্তি আদায়ে সহনশীল না হয়ে ঋণ গ্রহিতাদের চাপ প্রয়োগ করেছে বলে অভিযোগ ঋণ গ্রহিতাদের। অপর দিকে বাংলাদেশে ব্যাংকের ঋণের কিস্তি আদায় স্থগিত এমন এক প্রজ্ঞাপনে আশার মুখ দেখলেও বাস্তবে এনজিও’র ঋণ গ্রহিতাদের কোন কাজে আসছে না। ওই প্রজ্ঞাপনে এনজিও’র ঋণ স্থগিতের কোন নির্দেশনা নেই। আমতলী লক্ষাধীক ঋণ গ্রহিতারা এনজিও’র ঋণের কিস্তি বন্ধের দাবি জানিয়েছেন।

[৫] আঠারোগাছিয়া ইউনিয়নের সোনাখালী গ্রামের মাহিনুর বলেন, পদক্ষেপ এনজিও থেকে ৪৮ হাজার টাকা ঋণ নিয়ে গরু ক্রয় করেছি। এখন আয় রোজগার নেই কিস্তিু দিতে সমস্যা হচ্ছে। কিস্তি পরিশোধ করতে হলে গরু বিক্রি করে করতে হবে। দ্রæত কিস্তি বন্ধের দাবী জানাই।

[৬] একই এলাকার জেসমিন বলেন , পদক্ষেপ থেকে ঋণ নিয়ে জমি ক্রয় করেছি। এখন রোজগার বন্ধ, খেতেই সমস্যা হচ্ছে। কিস্তি পরিশোধের কোন উপায় পাচ্ছি না। দ্রুত কিস্তি বন্ধের দাবী জানাই।

[৭] চাওড়া কাউনিয়া গ্রামের মোটর সাইকেল চালক মাঈনুল ইসলাম বলেন, এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে মোটর সাইকেল কিনেছি। করোনা ভাইরাসের কারনে আয় রোজগার প্রায় বন্ধের পথে। কিভাবে ঋণের কিস্তি পরিশোধ করবো তা ভেবে পাচ্ছি না?

[৮] বেসরকারি সংস্থা পদক্ষেপ এনজিও’র গাজীপুর ব্র্যাঞ্চের সিএম মোঃ জহিরুল ইসলাম বলেন, কিস্তি বন্ধের ব্যাপারে আমার কোন নির্দেশনা নেই। নির্দেশনা পেলে কিস্তি আদায় করবো না।

[৯] বেসরকারি সংস্থা ব্র্যাক’র আমতলী অফিসের ক্রেডিট অফিসার (প্রগতি) মোঃ মাঈনুল ইসলাম বলেন, নির্দেশনা পেলে কিস্তি আদায় বন্ধ করবো।

[১০] ব্র্যাক আমতলী অফিসের ম্যানেজার কাজী মোঃ দুলাল হোসেন বলেন, প্রধান কার্যালয় থেকে কিস্তি বন্ধের কোন নির্দেশনা দেয়নি। বন্ধের নির্দেশনা পেলে কিস্তি আদায় করবো না।

[১১] গ্রামীন ব্যাংক আমতলী শাখার ম্যানেজার মোঃ মেজবাহ উদ্দিন বলেন, কিস্তি বন্ধের কোন নির্দেশনা নেই বিধায়,কিস্তি আদায় করছি।

[১২] আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরা পারভীন বলেন, মঙ্গলবার বে-সরকারী সংস্থা এনজিও’র সমন্বয় সভা ডাকা হয়েছে। ওই সভায় সকল এনজিওকে আপাত কালীন সময়ে ঋণের কিস্তি বন্ধের নির্দেশ দেয়া হবে। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত