প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মোদী সাম্প্রদায়িক অপশক্তির প্রেতাত্মা, তাকে ঘৃণা করা প্রতিটি অসাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক সচেতন মানুষের নৈতিক দায়িত্ব

 

মুনশি জাকির হোসেন : রাষ্ট্র, সরকার, রাজনৈতিক দল/সংগঠন, প্রতিটির পৃথক পৃথক সত্তা, অস্তিত্ব, বৈশিষ্ট্য আছে। যদিও এগুলো নিবিড়ভাবে পরস্পর সম্পর্কিত, অনেক ক্ষেত্রে একে অপরের উপরে নির্ভরশীল, অনেক ক্ষেত্রে একে অপরের উপর আধিপত্য বিস্তারকারী। প্রতিটি রাজনৈতিক দলের মতোই আওয়ামী লীগ একটি রাজনৈতিক সংগঠন, যেটির নিজস্ব আদর্শ আছে, কর্মসূচি আছে, ইশতেহার আছে। রাজনৈতিক দলগুলো যখন সরকারে যায়, সরকার গঠন করে তখন সেই দলের আদর্শ/কর্মসূচি/ইশতেহার সরকারের মাধ্যম দিয়ে বাস্তবায়িত করে।

যেমন ভারতে বিজেপি করছে, বিজেপি একটি ধর্ম ভিত্তিক উগ্র সাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক সংগঠন, এরা ক্ষমতায় আসলে বর্তমানে যা করছে তা পূর্বেই অনুমিত ছিলো। আওয়ামী লীগ সরকারে আসলে আওয়ামী লীগ এই দলের আদর্শ সরকারের মধ্য দিয়ে বাস্তবায়ন করবে এটিই প্রত্যাশিত ছিলো, এই দলের আদর্শ বলতে যা বোঝায় তা দলটির গঠনতন্ত্রে আছে। আগামী বছর বাংলাদেশে মুজিব বর্ষ পালিত হবে, এটি সরকারিভাবে যেমন পালিত হবে তেমনি রাজনৈতিক দল হিসাবে আওয়ামী লীগেরও একটি রাজনৈতিক কর্মসূচি। সমস্যা হয়েছে সরকার এবং আওয়ামী লীগ দুটো আলাদা ধারণাকে এক করে ফেলা নিয়ে। আপনি আওয়ামী লীগার আপনার কর্মসূচি এবং সরকারের কর্মসূচি একই হতে হবে সেটি সত্য না। রাষ্ট্র, সরকার ভারতের সরকার প্রধানকে নিমন্ত্রণ করবে সেটি সরকারের বিষয়, রাষ্ট্রীয় প্রটোকলের বিষয়, কিন্তু আওয়ামী লীগ কি করবে সেটি আওয়ামী লীগের নিজস্ব রাজনৈতিক বিষয়। সরকারের সঙ্গে সকল আওয়ামী লীগারকে সহমত পোষণ করবে সেটি হওয়ার সুযোগ নেই। কৌশলগত কারণে সরকার একটি সিদ্ধান্ত নিতেই পারে, এর অর্থ এই না যে সরকারের মধ্যে আওয়ামী লীগ বিলীন হয়ে যাবে।মোদী একজন সাম্প্রদায়িক অপশক্তির প্রেতাত্মা, মোদীকে ঘৃণা করা প্রতিটি অসাম্প্রদায়ক রাজনৈতিক সচেতন মানুষের নৈতিক দায়িত্ব এবং কর্তব্য। একজন নিবেদিত বঙ্গবন্ধুর আদর্শের আওয়ামী লীগারের জন্য এটি আরও চরম সত্য। ফেসবুক থেকে

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত