প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ইতিহাসের কি চর্চা হচ্ছে? গোটা দেশ কি আজ মূর্খের পাঠশালা?

পীর হাবিবুর রহমান : আমাদের তাহিরি বলছেন, একাত্তরে বাংলা ভাষার জন্য ৩০ লাখ মানুষ রক্ত দিয়েছে, আড়াই লাখ মা-বোন সম্ভ্রম হারিয়েছেন। আমাদের ডিএমপির একটি ব্যানারে ভাষা শহীদ হিসেবে মুক্তিযুদ্ধের বীরশ্রেষ্ঠদের ছবি প্রচার করেছে। এমনকি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সংগীত বিভাগের একুশের ব্যানারেও ভাষা শহীদদের জায়গায় বীরশ্রেষ্ঠদের ছবি। একজন রইজউদ্দিন সাহিত্যে রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ স্বাধীনতা পুরস্কার পেয়েছেন। লেখকরাই চিনেন না।

এর আগে মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রীর রাজাকারের তালিকায় মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও বীরদের নাম, পরে বাতিল। তাহিরির কথায় আনন্দ পেয়েছেন। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত যে মূর্খতা, ইতিহাসের নির্লজ্জ বিকৃতি। এ লজ্জা গ্লানিতে কি আমাদের ডুবছি না আমরা? প্রশ্ন একটাই ইতিহাসের কি চর্চা হচ্ছে আজ? গোটা দেশ কি আজ মূর্খের পাঠশালা? কে দেবেন আজ জবাব? এই দায় তো সবার। চিৎকার করতে ইচ্ছা করে আমার। কি এক অসুস্থ প্রতিযোগিতায় দৌড়ঝাঁপ করছি সবাই। ফেসবুক থেকে

সর্বাধিক পঠিত