প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মিডল ইস্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউটের গবেষক কামরান পালানি মনে করেন, ইরাক থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করা ঠিক হবে না

দেবদুলাল মুন্না : আল জাজিরাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি একথা বলেন। তিনি বলেন, মার্কিন সেনারা ইরাক ত্যাগ করলে সুন্নি চরমপন্থী দলগুলো শক্তিশালী হবে। আইএসআইএল বহু সুন্নি অঞ্চলে আবার সংগঠিত হচ্ছে। ইরাকি নিরাপত্তা বাহিনী ও শিয়া মিলিশিয়ারা এ হুমকি মোকাবিলায় সক্ষম নয়। সুন্নি অঞ্চলে ইরানের প্রভাবের বিরুদ্ধে মার্কিন সামরিক বাহিনীকে ভারসাম্যের শক্তি হিসেবেও দেখা হচ্ছে।

ইরান সমর্থিত পপুলার মবিলাইজেশন ইউনিটগুলো (পিএমইউ) এখনো আইএসআইএল থেকে মুক্ত হওয়া সুন্নি অঞ্চলজুড়ে মোতায়েন রয়েছে।

ইরাক থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের একটি প্রস্তাব ইরাকি পার্লামেন্টে পাস করার এক মাসের বেশি সময় পর দেশটিতে মার্কিন বাহিনী থাকবে কি থাকবে না, সে সম্পর্কে অনিশ্চয়তা রয়ে গেছে। যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন হামলায় ইরানের ইসলামিক রেভল্যুশনারি গার্ড কোরের কুদস বাহিনীর কমান্ডার কাশেম সোলাইমানি এবং ইরাকের পপুলার মবিলাইজেশন ইউনিটগুলোর উপপ্রধান আবু মাহদি আল-মুহান্দিস নিহত হওয়ার পর মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের এ প্রস্তাব ইরাকি পার্লামেন্টে পাস হয়।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও গত ১০ জানুয়ারি প্রস্তাবটি খারিজ করে দিয়েছেন, কিন্তু স্থানীয় রাজনৈতিক নেতারা ইরাক থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের জন্য চাপ অব্যাহত রেখেছেন। পার্লামেন্টে এ প্রস্তাব প্রায় একচেটিয়াভাবে শিয়া দলগুলোর (ফাতাহ, সায়রুন, হিকমা, সাদিকুন) ভোটে পাস হয়েছে।

সর্বাধিক পঠিত