প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রাজনীতিই পশ্চিমবঙ্গের সবচেয়ে বড় দূষিত পদার্থ, মন্তব্য বাবুল সুপ্রিয়’র

সাইফুর রহমান : এবার ভারতের আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতায়।আয়োজক রাজ্য হয়েও এতে নিজেদের কোনো মন্ত্রী বা প্রতিনিধি না পাঠানোয় পশ্চিমবঙ্গ সরকারের প্রতি তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে এই মন্তব্য করেন পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির এই সাংসদ এবং কেন্দ্রীয় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন প্রতিমন্ত্রী। তিনি অভিযোগ করেন, রাজ্যের আমলাদের কেন্দ্রের অধিবেশনে যোগ দেয়ার অনুমতি দেওয়া হয় নি। যদিও তার অভিযোগের পাল্টা জবাবে তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, বিজেপি দেশে যে ধরনের সাম্প্রদায়িক বিষ ছড়াচ্ছে তা পুরো দেশই জানে। এনডিটিভি, ইন্ডিয়া টুডে

‘স্টেটস সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি মিনিস্টার্স কনক্লেভ’ শীর্ষক এক অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্যে সুপ্রিয় বলেন, ‘আইআইএসএফের পঞ্চম সংস্করণটি পশ্চিমবঙ্গে অনুষ্ঠিত হচ্ছে এবং রাজ্যের মন্ত্রীরাই এই অধিবেশনে অনুপস্থিত। আমি এর তীব্র নিন্দা জানাই।’ তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ডাকা কোনো সভায়ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উপস্থিত থাকেন না। আমাদের একটি ফেডারেল কাঠামো রয়েছে যাকে সম্মান করা দরকার। আমরা এখানে অনেক আশা নিয়ে এসেছি। পশ্চিমবঙ্গ আইআইএসএফ-এর পঞ্চম সংস্করণের আয়োজক রাজ্য, আর আপনাদের মন্ত্রীরাই আসবেন না। এটা কী ধরণের আচরণ? আমি আশা করি সবার শুভ বুদ্ধির উদয় হবে এবং ভবিষ্যতে অন্যান্য রাজ্যের সামনে আর এমন উদাহরণ স্থাপন করা হবে না। একজন বাঙালি হিসাবে আমি লজ্জা বোধ করছি। পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রীরা অংশ না নিলেও অন্যান্য রাজ্যের বেশ কয়েকজন মন্ত্রী মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।

তিনি আরো বলেন, আমি নিশ্চিত যে কলকাতা যেহেতু আয়োজক শহর তাই আমন্ত্রণটি নিশ্চয়ই পশ্চিমবঙ্গের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রীর কাছেও গিয়েছে। হয় তারা আমন্ত্রণটির কোনো প্রতিক্রিয়া জানাতে চাননি বা আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান করেছেন এবং তাই পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কোনো প্রতিনিধিত্ব নেই। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এখানে তাদের কোনো প্রতিনিধি নাই, তবে আমরা দিল্লিতে গিয়ে কিভাবে তাদের সমস্যা সমাধানের জন্য মন্ত্রণালয়ে আলোচনা করবো ?

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত