প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চট্টগ্রমে বিকাশের লুট হওয়া ৭০ লাখ টাকার ১৩ লাখ উদ্ধার, আটক ৫

নিউজ ডেস্ক :  চট্টগ্রামে বিকাশ ডিলারের চোখে মরিচের গুঁড়ো ছিটিয়ে ৭০ লাখ টাকা ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় ওই চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ঘটনার পর পুলিশ বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে টাকা লুটের ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তার এবং লুণ্ঠিত টাকার মধ্যে ১২ লাখ ৯০ হাজার টাকা উদ্ধার করে।  ভোরের কাগজ।

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ জানায়, গত ৯ মার্চ রাতে হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে হাটহাজারী ও ভুজপুরের বিকাশ ডিলার এবং ফিন্যান্স ম্যানেজার মো. সাইফুল ইসলাম টিপু (৩৮) তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ৭৭ লাখ টাকা নিয়ে বাসার উদ্দেশে রওনা হন। তিনি বাসার গেটে পৌঁছলে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা সংঘবদ্ধ ও পেশাদার ছিনতাইকারী চক্র তার চোখে মরিচের গুঁড়া ছিটিয়ে টাকাভর্তি ব্যাগটি ছিনিয়ে নিয়ে মোটরসাইকেল ও সিএনজি অটোরিকশায় পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে হাটহাজারী থানা পুলিশ তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে অটোরিকশা চালক সালাহউদ্দিন সরোয়ারকে আটক ও ঘটনায় ব্যবহৃত অটোরিকশাটি জব্দ করে। এরপর শুরু হয় ঘটনায় জড়িত অন্যদের আটকের পালা।

সরওয়ারের দেয়া তথ্য ও ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনা করে বিভিন্ন স্থানে অভিযান শুরু করে পুলিশ। তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে পুলিশ কুমিল্লা জেলার নাঙ্গলকোট ও চৌদ্দগ্রাম, চট্টগ্রাম মহানগর, বোয়ালখালী, বাঁশখালী, সাতকানিয়া এবং কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানাধীন কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অভিযান চালায়। অভিযানে পুলিশের জালে একে একে ধরা পড়ে ছিনতাইকারী চক্রের আরো ৪ সদস্য। গ্রেপ্তার হয় পেশাদার ছিনতাইকারী জসিম উদ্দিন ওরফে বখতিয়ার, আমির হোসেন, রাসেল ওরফে মানিক এবং লিয়াকত আলী। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ১২ লাখ ৯০ হাজার টাকা।

জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) মহিউদ্দিন মাহমুদ সোহেল বলেন, গ্রেপ্তার সালাহউদ্দিন সরওয়ার, আমির হোসেন এবং জসিম উদ্দিন ঘটনায় জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা উদ্ধারকৃত টাকা ভিকটিমের কাছে হস্তান্তর করেছেন।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত