প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কোন্দলে টালমাটাল বগুড়ার বিএনপি

কেএম নাহিদ : বিএনপির দুই নেতাকে বহিষ্কার ও জেলা কমিটি স্থগিতের জেরে টালমাটাল বগুড়া বিএনপি। দলকে বিভক্ত ও বিতর্কিত করতে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে দাবি নেতাকর্মীদের। সিদ্ধান্ত বাতিল না করলে জেলায় বিএনপির আর কোনো কার্যক্রম চালাতে না দেয়ার হুমকিও দিয়েছেন তারা। ডিবিসি

জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক পরিমল চন্দ্র দাস ও স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শাহ্ মেহেদী হাসান হিমুর প্রাথমিক সদস্যপদ স্থগিত এবং জেলা কমিটি স্থগিত করে আহ্বায়ক কমিটি গঠনের নির্দেশের পর থেকে চলছে বিক্ষোভ। তাদের অভিযোগ হঠাৎ এরকম সিদ্বান্তে ক্ষতিগ্রস্ত হবে দল। কেন্দ্রের এরকম সিদ্বান্তে কার্যালয়ে তালা লাগানোর ছাড়াও বিএনপির সাবেক এমপি গোলাম মোহাম্মদ সিরাজের কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়। সিদ্বান্ত না বদলালে বগুড়ায় দলের কার্যক্রম চালাতে দেয়া হবে না বলে দাবি ক্ষুব্ধ নেতা কর্মীদের। জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সাহাবুল আলম পিপলু জানান, ‘যদি পদ স্থগিত করতে হয়, তবে জেলা বিএনপির ২৫জন নেতারই পদ স্থগিত করতে হবে। নেতা কর্মীরা এটা বুঝতে পেরেছে বলেই তারা এটার প্রতিবাদ করছে।’

বগুড়া জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সভাপতি লাভলী রহমান বলেন, ‘একটি কুচক্রী মহল; যারা বিএনপিকে ভাঙ্গার জন্য সবসময় চেষ্টা করে যাচ্ছে, সেই চেষ্টার ধারাবাহিকতায়, তারা নতুন করে আবার বগুড়া বিএনপির দূর্গতে আঘাত হানতে চেয়েছে।’
জেলা বিএনপি সভাপতি জানান, সিদ্ধান্ত বদলাতে কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে করা হবে আবেদন। তিনি বলেন, ‘আমরা আমাদের নেতার কাছে অনুরোধ করবো যে, এরা আপনারই, এরা আপনার অংশ, এদেরকে কোথায় ফেলে দেবেন? এদেরকেই প্রয়োজন। গোলাম মো. সিরাজ, বগুড়া-৫ আসন থেকে টানা তিনবার এমপি হন। ২০০৮ সালে খালেদা জিয়াকে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করে বহিষ্কৃত হন। কিন্তু একাদশ সংসদ নির্বাচনে হঠাৎ করেই পেয়ে যান বিএনপির মনোনয়ন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত